ইলেকট্রিক গাড়িতে অনলাইন অর্ডার ডেলিভারি দেবে এই সংস্থা, রাস্তায় 18000 EV নামানোর লক্ষ্য

ডেলিভারি এবং লজিটিক্স ক্ষেত্রে বৈদ্যুতিক যানবাহনের ব্যবহারে আগ্রহ প্রকাশ করছে বিভিন্ন সংস্থা। প্রধান কারণ, জ্বালানি তেলের চড়া দাম থেকে মুক্তি। তাছাড়া বায়ুদূষণের মাত্রা কমানোর লক্ষ্য তো আছেই। এবার থার্ড পার্টি লজিটিক্স পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান জিঙ্গো গোটা দেশে লাস্ট মাইল ডেলিভারির জন্য ১৮ হাজারের উপরে ইলেকট্রিক ভেহিকেল রাস্তায় নামানোর ঘোষণা করল।

বিদ্যুৎচালিত যানগুলি বিভিন্ন দেশীয় সংস্থার থেকে লিজে অথবা সরারসি কিনে নেবে তারা। বর্তমানে দিল্লি-এনসিআর, বেঙ্গালুরু, মুম্বই, হায়দরাবাদ, জয়পুর, চন্ডিগড়ে প্রথম সারির অনলাইন গ্রোসারি এবং  ই-কমার্স সংস্থাকে পরিষেবা দিয়ে আসছে। এছাড়া, পুণে, চেন্নাই, ভোপাল, লক্ষ্ণৌ শহরেও ডেলিভারি চালু করার কথা ভাবছে তারা।

নতুন নতুন জায়গার পাশাপাশি বৈদ্যুতিক যানবাহনের বহর বাড়ানোর উপরে দৃষ্টি নিক্ষেপ করছে জিঙ্গো‌। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, বিভিন্ন অরিজিনাল ইক্যুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার্স (OEM)-এর সঙ্গে সার্ভিস লেভেল অ্যাগ্রিমেন্টসের মাধ্যমে জোটবদ্ধ হচ্ছে তারা‌। যেখানে ইলেকট্রিক ভেহিকেলের রক্ষনাবেক্ষণ ও সার্ভিসিংয়ের দায়িত্ব বর্তাবে সংশ্লিষ্ট নির্মাতার উপর।

জিঙ্গোর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও প্রতীক রাও বলেন, “২০২২-২৩ অর্থবর্ষের শেষে আমরা আমাদের বৈদ্যুতিক গাড়ির ফ্লিট সাইজ ১৮ হাজারে বাড়াতে চলেছি। নভেম্বরের মধ্যেই ১০ হাজার ইভি রাস্তায় নামানো আমাদের লক্ষ্য।” এর ফলে সংস্থাটিতে বৈদ্যুতিক দু’চাকা গাড়ির পরিমাণ দাঁড়াবে ৬০ শতাংশ। আর বাকি ৪০ শতাংশ ইলেকট্রিক থ্রি হুইলার। জিঙ্গো বর্তমানে প্রতিমাসে ৩ লাখের উপরে অর্ডার ডেলিভারি দিচ্ছে। তাদের কাছে এখন ৮৫০টি ব্যাটারিচালিত দু’চাকা ও তিন চাকা গাড়ি রয়েছে‌।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।