Yezdi ভারতে আনছে Adventure ও Scrambler বাইক, Royal Enfiled-এর সাথে টক্কর দেওয়াই কি লক্ষ্য?

ক্লাসিক লেজেন্ডস এর সৌজন্যে প্রায় দীর্ঘ ২৫ বছর পর ভারতের বাজারে ইয়েজদির বাইক আসতে চলেছে

yezdi-to-launch-adventure-scrambler-bike-in-india-to-take-on-royal-enfield
photo credit : www.RUSHLANE.com

ভারতে কয়েক মাস আগেই Yezdi-র Scrambler ডিজাইনের একটি বাইকের টেস্ট ড্রাইভের স্পাই ভিডিও লিক হয়েছিল। এবার সম্প্রতি আরো একটি স্পাই ভিডিওতে ইয়েজদি (Yezdi)-র দুটি বাইক (Adventure ও Scrambler) এর রোড টেস্টিংয়ের ছবি ধরা পড়েছে। আমরা জানি মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা (Mahindra & Mahindra)-র শাখা সংস্থা ক্লাসিক লেজেন্ডস (Classic Legends) এর হাত ধরেই ভারতে জাওয়া (Jawa) ব্র্যান্ডটি পুনরুজ্জীবন পেয়েছিল। এবারে সেই ক্লাসিক লেজেন্ডস এর সৌজন্যে প্রায় দীর্ঘ ২৫ বছর পর ভারতের বাজারে ইয়েজদির বাইক আসতে চলেছে। দেশীয় বাজারে খুব শীঘ্রই মোটরসাইকেল দুটির লঞ্চ হওয়ার ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা দিয়েছে সংস্থাটি।

প্রসঙ্গত, এতদিন পর ইয়েজদির প্রত্যাবর্তন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল। কারণ গত ২০১৮ সালের নভেম্বরে ক্লাসিক লেজেন্ডসের সহায়তায় জাওয়া বাইকটি বাজারে এলেও বাইক প্রেমীদের মনে তা কিন্তু বিশেষ দাগ কাটতে পারেনি। এবার তাই লঞ্চ হতে চলা ইয়েজদির অ্যাডভেঞ্চার ও স্ক্র্যাম্বলার মডেলের বাইক দুটির নির্মাণে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। জোর কদমে চলছে খুঁটিনাটি খতিয়ে দেখার কাজ। এদের মধ্যে রেট্রো ক্লাসিক ক্রুজার সেগমেন্ট কাঁপানো রয়্যাল এনফিল্ড (Royal Enfield) এর হিমালয়ান (Himalayan) মডেলের বাইকটিকে টেক্কা দিতে পারে অ্যাডভেঞ্চার মডেলের বাইকটি।

Yezdi Adventure এর ফিচার

টেস্ট ড্রাইভের ভিডিওটিতে দেখা গেছে অ্যাডভেঞ্চার মডেলের বাইকটিতে আপরাইট রাইডিং পজিশন (Upright Riding Position) রয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য ফিচার বলতে স্পোক্ড হুইলস (Spoked Wheels), মোনোশক (Monoshock), ব্লক-প্যাটার্ন ট্রেডস এর সাথে পেছনের চওড়া টায়ার, গোলাকৃতি হেডলাইট পাওয়া যাবে। রয়্যাল এনফিল্ড এর হিমালয়ান মডেলটির মতো এতেও ফুয়েল ট্যাঙ্কের শেষে লাগেজ মাউন্টিং পয়েন্ট রয়েছে। তবে এর বিস্তারিত স্পেসিফিকেশন লঞ্চের পরেই জানা যাবে।

Yezdi Scrambler এর ফিচার

ইয়েজদির স্ক্র্যাম্বলার মডেলের বাইকটি ডুয়েল রিয়ার শক অ্যাবজর্ভার (dual rear shock absorbers) এর সাথে আসবে। এছাড়াও আপকামিং এই মডেলটিতে সিঙ্গেল-সিলিন্ডার, লিকুইড কুল্ড ইঞ্জিন থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ডিসপ্লেসমেন্ট এবং আউটপুট বর্তমান জাওয়া মোটরসাইকেলের থেকে পৃথক হবে বলেই অনুমান করা হচ্ছে। আবার লঞ্চের দিনক্ষণ সম্পর্কে কোম্পানির তরফে এখনো সেরকম কিছু ঘোষণা করা হয়নি। যদিও সম্প্রতি মুম্বাই-পুনে হাইওয়েতে বাইক দুটির রোড টেস্টিংয়ের ভিডিও থেকে বোঝা যাচ্ছে এদের আত্মপ্রকাশের দিনক্ষণ খুব শীঘ্রই ঘোষণা করা হতে পারে। হয়তো এ বছরের শেষের দিকে না হলে আগামী বছরের শুরুতেই বাজারে আসতে পারে বাইক দু’টি।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।