অন্য মেয়ের সাথে মেলামেশা, প্রেমিক-কে Apple AirTag এর সাহায্যে খুঁজে খুন করল প্রেমিকা

অন্য মহিলার সঙ্গে মেলামেশা...Apple Airtag মারফত বয়ফ্রেন্ডকে খুঁজে তাকে খুন করল প্রেমিকা!

খোয়া যাওয়া জিনিস খুঁজে পেতে মানুষের যাতে কোনো অসুবিধা না হয়, প্রকৃতপক্ষে সেকথা ভেবেই মার্কিন মুলুকের কুপার্তিনো ভিত্তিক সংস্থা Apple বিশ্ববাজারে তাদের AirTag লঞ্চ করে। অথচ প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই ভালো কাজের পাশাপাশি বহু খারাপ এমনকি অপরাধমূলক কাজকর্মের সাথেও Apple AirTag -এর নাম জুড়েছে। এবার এমনই আরেক নৃশংস ঘটনার মূলে অ্যাপলের এই ট্র্যাকার যা নেটিজেন মহলে তীব্র চাঞ্চল্য তৈরী করেছে।

আজ্ঞে হ্যাঁ, মার্কিন মুলুকের এক জনপ্রিয় সংবাদ সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী, সম্প্রতি আমেরিকার ইন্ডিয়ানা প্রদেশের বাসিন্দা একজন মহিলা উক্ত Apple AirTag -এর মাধ্যমে বয়ফ্রেন্ডকে ট্র্যাক করে তাকে ঘৃণ্য নৃশংসতার সাথে হত্যা করে! বয়ফ্রেন্ডের অপরাধ, সে প্রেমিকার অজান্তে চুপিচুপি অন্য মহিলার সাথে মেলামেশা করতো। এর বাইরে নিহত বয়ফ্রেন্ডের বিরুদ্ধে খুনি প্রেমিকার অন্য কোনো অভিযোগ নেই, যা সে নিজের মুখেই স্বীকার করেছে।

ঘটনার তদন্তকারীদের কাছে খুনের দায়ে অভিযুক্ত মহিলা জানিয়েছে, বয়ফ্রেন্ড যে তাকে দীর্ঘদিন ধরে ঠকাচ্ছে সেকথা ক্রমে তার কাছে পরিষ্কার হয়। ঘটনার দিন সে অ্যাপল এয়ারট্যাগের মাধ্যমে বয়ফ্রেন্ডকে ট্র্যাক করে এক বারে গিয়ে পৌঁছয়। সেই বারেই সে তার বয়ফ্রেন্ডকে অন্য মহিলার সাথে গল্পগুজব করতে দেখে। এ ঘটনায় তার মাথাখারাপ হয়ে যায় এবং হঠাৎই সে প্রেমিকের সামনে গিয়ে উপস্থিত হয়। পরে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় শেষে উভয়পক্ষই বার থেকে বেরিয়ে আসে। রিপোর্টে উল্লেখ, এর পরেই অভিযুক্ত মহিলা নিজ বয়ফ্রেন্ডকে গাড়ির ধাক্কায় ঘায়েল করে মুহূর্তের মধ্যে তার উপর দিয়েই গাড়ি চালিয়ে দেয়! এর ফলে খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রেমিকের মৃত্যু হয়েছে।

এই পুরো ঘটনা প্রকাশ্যে আসতে স্বভাবতই নেটাগরিক মহলে শোরগোল তৈরী হয়েছে। চাবি, ব্যাগ, এয়ারপডের মতো ছোটখাটো জিনিস খুঁজে পেতে সহায়ক একটি ট্র্যাকার ব্যবহার করে যে এমন জঘন্য অপরাধ করা যেতে পারে তা অনেকেরই ভাবনার বাইরে। তবে সাধারন মানুষে ভাবতে না পারলেও উক্ত ঘটনার পর অ্যাপলকে যে এয়ারট্যাগ সম্পর্কে নতুন করে ভাবতে হবে তা অবশ্য বলা বাহুল্য। অবশ্য এ ব্যাপারে অ্যাপল যে আগে ভাবেনি তেমনটাও নয়। বিশেষ করে আইফোন ইউজারেরা যাতে AirTag -এর অপব্যবহার করতে না পারে সেকথা ভেবে Apple কিছুদিন আগেই আইওএস (iOS) মাধ্যমে ট্র্যাকিং রোধকারী (Anti-tracking) ফিচার রিলিজ করেছে। এক্ষেত্রে ভবিষ্যতে সংস্থাটি আরও কি কি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সেদিকে সারা বিশ্বের চোখ থাকবে।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।