আরোগ্য সেতু অ্যাপ কে কার নির্দেশে বানিয়েছে উত্তর নেই কারো কাছে

অতিমারিতে সম্পূর্ণভাবে অচল হওয়া সামাজিক জীবন একটু একটু করে ছন্দে ফিরছে। দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা বেশ খানিকটা কমার দিকে। তবু কথায় আছে না সাবধানের মার নেই! সেই কারণেই আমরা অনেকেই সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনে চলার সাথে সাথে কেন্দ্রীয় সরকারের ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপ্লিকেশনটিও ফোনে ইনস্টল করেছি। কিন্তু লক্ষ লক্ষ ডাউনলোড হওয়া এই Aarogya Setu অ্যাপের ডেভেলপার কে বা কার নির্দেশেই বা তৈরী হয়েছিল ‘আরোগ্য সেতু’ আপনি জানেন? শুধু আপনি নন, দেশের কেউই এই প্রশ্নের উত্তর জানেন না। এমনকি এর উত্তরে নেই ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্স সেন্টারের কাছেও। আর তাই এই সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্নের সামনে চুপ করে থাকার দরুণ ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্স সেন্টারকে (NIC) ভর্ৎসনা করলো Central Information Commission (CIC)।

সম্প্রতি সৌরভ দাস নামক একজন আরটিআই অ্যাক্টিভিস্ট তথ্য জানার অধিকার আইনে ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপের প্রস্তুতকারক কারা বা তৎসংক্রান্ত আরো কিছু বিষয় জানতে চেয়েছিলেন। কিন্তু অবাক হওয়ার মতো বিষয়, ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্স সেন্টার সেই সম্পর্কে কোন তথ্যই দিতে পারেনি! এদিকে আরোগ্য সেতুর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের দাবী অনুযায়ী NIC এবং কেন্দ্রের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক যৌথভাবে অ্যাপটিকে তৈরী করেছে। কিন্তু সেই সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করলে কেন্দ্রীয় সরকারের দুই সংস্থারই মুখে কুলুপ! ব্যাপারটা বড্ড গোলমেলে নয় কি?

এক্ষেত্রে যথেষ্ট অসঙ্গতি থাকার কারণেই কেন্দ্রীয় সরকারের উপরোক্ত দুই প্রতিষ্ঠান CIC এর রোষের মুখে পড়েছে। কেন্দ্রীয় ইনফর্মেশন সেন্টারের পক্ষ থেকে NIC -এর অধিকর্তাদের কাছে জবাব চাওয়া হয়েছে। আরোগ্য সেতু সংক্রান্ত কোন তথ্য পেশ করতে না পারায় তারা অত্যন্ত কড়া ভাষায় NIC ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের সমালোচনা করেছে।

সৌরভ দাসের দায়ের করা আরটিআই আবেদনের কোন উত্তর দিতে না পারা এবং তথ্য গোপন করায় CIC ন্যাশনাল ইনফরমেটিক্সের একাধিক চীফ পাবলিক ইনফর্মেশন অফিসারকে (CPIO) শো-কজ করেছে। তাছাড়া National e-Governance Division (NeGD) ও MeitY বা তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

ভর্ৎসনার মুখে পড়লেও কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলি আরোগ্য সেতু নিয়ে এখনো কিছু বলতে নারাজ। ইনফর্মেশন কমিশনার বনজা এন শর্মার তিরস্কারের জবাবে তাদের জবাব শুধু নৈঃশব্দ! এদিকে অতিমারির সময় কনট্যাক্ট ট্রেসিংয়ের নামে হুড়মুড়িয়ে চলেছে আরোগ্য সেতু ডাউনলোড। অথচ আশ্চর্যের বিষয়, কে বা কারা এই অ্যাপ তৈরী করেছে, ঠিক কোন কোন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা সরকারি দপ্তর এই অ্যাপ তৈরীর সাথে সংযুক্ত, সে সম্পর্কে কোন নথিই NIC, NeGD বা MeitY প্রকাশ করেনি! এখন তিতিবিরক্ত সেন্ট্রাল ইনফর্মেশন কমিশনারের কড়া চিঠির মুখে তারা কোন সদুত্তর দিতে পারে কিনা সেটাই দেখার।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন