Aadhaar-Pan: মৃত ব্যক্তির আধার ও প্যান কার্ড নিয়ে কী করা উচিত? জেনে নিন

মৃত ব্যক্তির প্যান কার্ড বা আধার কার্ড নিয়ে কী করা উচিত? জানেন কী?

প্যান কার্ড (Pan Card) এবং আধার কার্ড (Aadhaar Card) ভারতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথিগুলির মধ্যে বিবেচিত হয়। ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খুলতে, পরিচয়ের প্রমাণ দিতে, নতুন ব্যবসা শুরু করতে বা বিভিন্ন কাজে এই দুটি গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন বা যাচাইকরণের জন্য চাওয়া হয়ে থাকে। সুতরাং, জীবনের প্রথম থেকে শেষ ধাপ পর্যন্ত ব্যবহৃত এই পরিচয়পত্র দুটিকে বানানো এবং সর্বদা সাথে রাখা আবশ্যক। কিন্তু যারা মারা গেছেন তাদের প্যান কার্ড বা আধার কার্ড আর তো প্রয়োজন নেই। তাহলে তাদের এই ডকুমেন্টগুলি নিয়ে কী করা উচিত? আসুন এ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

মৃত ব্যক্তির Pan Card নিয়ে কী করবেন?

প্যান কার্ড হল ইনকাম ট্যাক্স রিটার্ন (ITR) ফাইল করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি। ফলত, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ডিম্যাট (ডিম্যাটেরিয়ালাইজড অ্যাকাউন্ট) সহ প্রতিটি অর্থনীতি সংক্রান্ত জায়গায় প্যান কার্ড ব্যবহৃত হয়ে থাকে। সেই জন্য আয়কর বা ইনকাম ট্যাক্স রিটার্নের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত এই ডকুমেন্টটি নিরাপদ রাখা খুবই জরুরি। এক্ষেত্রে, মৃত ব্যক্তির ট্যাক্স রিটার্নের টাকা অ্যাকাউন্টে ফেরত আসার সঙ্গে সঙ্গেই, অধিদপ্তরের (ডিপার্টমেন্ট) পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে যায়। এরপর আপনারা চাইলে, অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার জন্য প্যান কার্ড ইনকাম ট্যাক্স বিভাগের কাছে জমা দিতে পারেন। তবে, মৃত ব্যক্তির আইনি উত্তরাধিকারীই একমাত্র এই ডকুমেন্ট ITR বিভাগের কাছে হস্তান্তর করতে পারেন।

Pan Card জমা করার আগে এই কাজটি করুন

মৃত ব্যক্তির প্যান কার্ড জমা করার আগে, অতিআবশ্যক ভাবে মৃত ব্যক্তির সমস্ত অ্যাকাউন্ট, অপর কোনো ব্যক্তির নামে স্থানান্তর করা উচিত। অথবা, আপনি সেই স্বর্গীয় ব্যক্তির অ্যাকাউন্টগুলি বন্ধও করতে পারেন। জানিয়ে রাখি, ইনকাম ট্যাক্স বিভাগের এরূপ অধিকার আছে যে, চার বছরের মূল্যায়নের (অ্যাসেসমেন্ট) পর তারা আবার মৃত ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। অতএব, যদি মৃত ব্যক্তির কোনো ট্যাক্স রিফান্ড বকেয়া থাকে, তাহলে প্যান কার্ড ফেরানোর পূর্বে এই কাজটি সম্পন্ন হয়েছে কিনা তা যাচাই করে নিন।

এভাবে ফেরত দিন মৃত ব্যক্তির Pan Card

মৃত ব্যক্তির প্যান কার্ড স্যারেন্ডার করা বাধ্যতামূলক নয়। আপনি যদি মনে করেন যে, ভবিষ্যতে এই ডকুমেন্টের প্রয়োজন পড়তে পারে, তবে সেই প্যান কার্ড নিজের কাছে রেখেও দিতে পারেন আপনি। কিন্তু যদি এই ডকুমেন্টের প্রয়োজন না থাকে, তাহলে নিরাপত্তার খাতিরে তা বন্ধ বা স্যারেন্ডার করে দেওয়াই ভালো। কারণ প্যান কার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নথি। তাই ভুল হাতে পড়লে এটির অপব্যবহার হতে পারে।

প্যান কার্ড স্যারেন্ডার করার জন্য, মৃত ব্যক্তির আইনি উত্তরাধিকারীকে অ্যাসেসমেন্ট অফিসারের কাছে একটি আবেদন জমা করতে হবে। এই আবেদনে স্পষ্ট উল্লেখ করতে হবে যে, আপনি প্যান কার্ড স্যারেন্ডার করতে চান। এই আবেদন পত্রের সাথে, মৃত ব্যক্তির নাম, প্যান কার্ড নম্বর, জন্ম তারিখ এবং মৃত্যুর শংসাপত্র (ডেথ সার্টিফিকেট) অ্যাটাচ করে পাঠাতে হবে।

মৃত ব্যক্তির Aadhaar Card এর সাথে কী করা উচিত

ঠিকানার প্রমাণ হিসাবে আধার কার্ড একটি অপরিহার্য ডকুমেন্ট। এছাড়াও, জন্মের পর থেকে এটিকে পরিচয়পত্র হিসাবেও ব্যবহার করা হয়। তাই, জন্মের শংসাপত্র সংগ্রহ করা বা ভোট দেওয়া থেকে এলপিজি গ্যাস ভর্তুকি, কিষাণ সম্মান নিধি সহ অন্যান্য সরকারী প্রকল্পের সুবিধা নিতে আধার কার্ড প্রয়োজনীয়।

এদিকে ভারত সরকার প্যান কার্ড বন্ধ করার প্রক্রিয়া চালু করলেও, এখন পর্যন্ত মৃত্যুর পর আধার কার্ড বন্ধ করার কোনো উপায় সম্পর্কে জানায়নি।

এমত পরিস্থিতিতে, আধার কার্ডে থাকা ‘ইউনিক’ নম্বর বা বাদবাকি তথ্যাদি অন্য কাউকে জানাবেন না। একই সাথে, কোনো ভাবে আধার কার্ড হারিয়ে গেলে পুলিশের কাছে তার রিপোর্ট নথিভুক্ত করা উচিত। যাতে মৃতের পরিবারকে অযাচিত কোনো সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয়।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।