Voter Id online: ঘরে বসেই ১০ দিনের মধ্যে মিলবে ভোটার আইডি কার্ড! কীভাবে আবেদন করতে হবে জেনে নিন

অনলাইনে কীভাবে ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে, তার জন্য প্রয়োজনীয় স্টেপগুলি ধাপে ধাপে জেনে নিন

voter-id-card-online-apply-link-will-be-delivered-at-your-address

নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার কায়েম করতেই একজন মানুষ ভোট দিয়ে থাকেন, এবং সেজন্য ভোট দেওয়া দেশের প্রতিটি নাগরিকেরই প্রাথমিক অধিকার। তাই আঠারো বছর বয়স হয়ে গেলেই প্রত্যেকে নিজের জন্য একটি ভোটার আইডি কার্ড (Voter ID Card) তৈরি করে ফেলার কথা চিন্তা করেন। একজন স্বাধীন নাগরিক হিসেবে দেশের নেতৃত্বস্থানীয় পদগুলিতে কাকে বেছে নেবেন, তা কোনো মানুষের ভোটাধিকারের ওপরেই নির্ভর করে; আর সেজন্য দেশের প্রতিটি নাগরিকের কাছে এই কার্ডটি থাকা একান্ত আবশ্যক। কিন্তু একথা আমরা সকলেই জানি যে, ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করতে গেলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ব্যবহারকারীদের। একগোছা ফর্ম ফিল-আপের পাশাপাশি হাজারবার করে অফিসে ছোটাছুটি করে একটি ভোটার কার্ড হাতে পেতে গেলে মানুষের রীতিমতো কালঘাম ছুটে যায়! কিন্তু এই প্রতিবেদনে আমরা আপনাদেরকে এমন একটি সহজ উপায়ের কথা জানাতে চলেছি, যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে খুব সহজেই নিজের জন্য একটি নতুন ভোটার কার্ড তৈরি করে ফেলতে সক্ষম হবেন। কীভাবে? আসুন জেনে নিই।

কীভাবে অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করবেন (How to Apply Voter ID Online)

একটি নতুন ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করা খুবই সহজ, তবে এর জন্য ব্যবহারকারীদের কাছে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টগুলি মজুত থাকা প্রয়োজন। অনলাইনে নতুন ভোটার কার্ড পেতে হলে ইউজারদের সর্বপ্রথম নির্বাচন কমিশনের (Election Commission of India বা ECI) অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। সাইটটিতে গিয়ে উপভোক্তারা নিজেদের ভোটার আইডি রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। তদুপরি, এই ওয়েবসাইটে নির্বাচনী প্রক্রিয়া সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য মজুত রয়েছে। এছাড়া, সাইটটিতে বেশ কয়েকটি ফর্মও রয়েছে, যেগুলি ইউজাররা নিজেদের প্রয়োজনমাফিক ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন – পুরোনো ভোটার আইডি কার্ডে কোনো পরিবর্তন করতে চাইলে এখান থেকে সংশ্লিষ্ট ফর্মটি বেছে নিয়ে তা অনায়াসে করা যেতে পারে। আবার নিরাপত্তা কর্মী এবং দেশের বাইরে বসবাসকারী মানুষদের জন্য রয়েছে আলাদা ফর্ম।

ফলে একথা খুব সহজেই বোঝা যাচ্ছে যে, উক্ত ওয়েবসাইটটি থেকে ইউজাররা নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী ফর্মটি ডাউনলোড করে ঘরে বসেই অতি অনায়াসে দরকারি কাজ সেরে ফেলতে সক্ষম হবেন। তবে নতুন ভোটার কার্ডের আবেদনের জন্য ব্যবহারকারীদের ফর্ম ৬ (Form 6) সিলেক্ট করতে হবে, এবং ফর্মটিকে ফিল-আপ করে অনলাইনে জমা দিতে হবে। তাহলে আসুন, অনলাইনে কীভাবে ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে, তার জন্য প্রয়োজনীয় স্টেপগুলি ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক।

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড আবেদনের পদ্ধতি (Online Voter ID Card Application Procedure)

ধাপ ১: প্রথমে ভারতের নির্বাচন কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যান।

ধাপ ২: ন্যাশনাল ভোটারস সার্ভিসেস পোর্টাল (National Voters Services Portal)-এ ক্লিক করুন।

ধাপ ৩: “অ্যাপ্লাই অনলাইন ফর রেজিস্ট্রেশন অফ নিউ ভোটার” (Apply online for registration of new voter)-এ ক্লিক করুন।

ধাপ ৪: ফর্মটিতে আপনার সমস্ত ডিটেইলস এন্টার করুন এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টগুলি আপলোড করুন।

ধাপ ৫: সবশেষে “সাবমিট” (Submit)-এ ক্লিক করুন।

সব ডিটেইলস সঠিকভাবে এন্টার করার পর আপনার রেজিস্টার্ড ই-মেইলে একটি মেইল আসবে, যাতে একটি লিঙ্কের উল্লেখ থাকবে। এই লিঙ্কটিকে কাজে লাগিয়ে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ডের অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাস ট্র্যাক করতে পারবেন। সবকিছু ঠিকঠাক চললে এক মাসের মধ্যেই আপনি আপনার ভোটার কার্ড হাতে পেয়ে যাবেন। আবার অনেক ক্ষেত্রে কোনো কোনো ইউজারের কাছে এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিনের মধ্যেও ভোটার কার্ড চলে আসে। সোজা কথায় বললে, ঘরে বসে নির্ঝঞ্ঝাটে ভোটার কার্ড হাতে পেতে চাইলে এই পন্থাটি অবলম্বন করাই শ্রেয়।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।