বেশি শেয়ার থাকলেও Vodafone Idea কে চালাতে চায় না সরকার, স্পষ্ট করলেন খোদ Vi-এর সিইও

ইক্যুইটি রূপান্তরের পরে কোম্পানিতে ভোডাফোন গ্রুপের শেয়ারহোল্ডিং প্রায় ৪৪.৩৯ শতাংশ থেকে ২৮.৫ শতাংশে নেমে আসবে এবং আদিত্য বিড়লা গ্রুপের শেয়ার দাঁড়াবে প্রায় ১৭.৮ শতাংশে, যা আগে ছিল ২৭.৬৬ শতাংশ

Advertisements

গত পরশু জানা গিয়েছে যে স্পেকট্রামের বকেয়া অর্থ মেটাতে না পারায়, Vi অর্থাৎ Vodafone Idea (ভোডাফোন আইডিয়া) নিজের শেয়ারের প্রায় ৩৬ শতাংশ কেন্দ্রীয় সরকার কে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর এর পরেই সরকারের হাতে বেশি শেয়ার থাকার ফলে টেলিকম সংস্থার অবস্থা কী হবে, সেটা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই ধোঁয়াশার উদ্ভব হয়েছে। তবে গতকাল, বুধবার Vi-এর সিইও রবীন্দ্র তক্কর স্পষ্ট করে বলেছেন যে, তাদের প্রোমোটাররা সম্পূর্ণরূপে কোম্পানির কার্যক্রম পরিচালনা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং সরকার এখনই তাদের টেলিকম কোম্পানি চালাতে চায় না।

উল্লেখ্য, সরকারের কাছে এই মুহূর্তে ভোডাফোন আইডিয়ার ৩৫.৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। এতে সরকার, কোম্পানির সবচেয়ে বড় শেয়ারহোল্ডার হয়ে উঠেছে। ফলে অনেকে মনে করছিল, এবার ভারতের তৃতীয় বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানির কার্যক্রমে সরকারের হাত থাকবে। কিন্তু সংস্থার সিইও জানিয়েছে যে, সরকার সংস্থাটি চালাতে চায় না। তাদের ভোডাফোন আইডিয়ার দায়িত্ব নেওয়ার ইচ্ছা নেই। অন্তত টেলিকম বিভাগের চিঠিতে ইক্যুইটি রূপান্তরের ক্ষেত্রে এধরনের কোনো শর্ত দেওয়া হয়নি।

Advertisements

প্রসঙ্গত, ইক্যুইটি রূপান্তরের পরে কোম্পানিতে ভোডাফোন গ্রুপের শেয়ারহোল্ডিং প্রায় ৪৪.৩৯ শতাংশ থেকে ২৮.৫ শতাংশে নেমে আসবে এবং আদিত্য বিড়লা গ্রুপের শেয়ার দাঁড়াবে প্রায় ১৭.৮ শতাংশে, যা আগে ছিল ২৭.৬৬ শতাংশ। তবে ঋণ কমাতে সরকারের হাতে নিজেদের শেয়ার তুলে দিলেও, তাদের প্রোমোটাররাই কোম্পানির কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

ভি সিইও বলেছেন, ” সরকার আমাদের জন্য প্যাকেজ ঘোষণা করে উদ্ধার করছে, তবে তারা সংস্থাটি চালাতে চায় না। তাদের কোম্পানির কার্যক্রম গ্রহণের ইচ্ছা নেই… তারা বাজারে তিনটি বেসরকারী কোম্পানি চায়, তারা ডুওপলি বা মোনোপলি (একচেটিয়া) চায় না।”

Advertisements

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।