Vivo Y22, Vivo Y22s শীঘ্রই ভারতে লঞ্চ হচ্ছে, ফাঁস কালার ও স্টোরেজ অপশন

ভিভো ওয়াই২২ ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ সহ আসবে। অন্যদিকে, ভিভো ওয়াই২২এস ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ কনফিগারেশন বিকল্প অফার করবে

vivo-y22-y22s-storage-colour-options-tipped-india-launch-soon-specifications

Vivo Y22 স্মার্টফোন সিরিজ শীঘ্রই ভারতীয় বাজারে লঞ্চ হতে চলেছে। আসন্ন এই সাশ্রয়ী মূল্যের সিরিজের অধীনে Vivo Y22 এবং Vivo Y22s নামের দুটি হ্যান্ডসেট আত্মপ্রকাশ করতে পারে। আজ আলোচ্য মডেল-দ্বয়ের সম্ভাব্য স্টোরেজ এবং কালার ভ্যারিয়েন্টের তথ্য অনলাইনে ফাঁস হয়েছে। প্রসঙ্গত, Vivo Y22s ফোনটিকে সম্প্রতি TKDN সার্টিফিকেশন সাইটে V2206 মডেল নম্বর সহ উপস্থিত হতে দেখে গেছে। পাশাপাশি, সিরিজের ভ্যানিলা মডেল অর্থাৎ Vivo Y22 -কে V2207 মডেল নম্বর সহ একাধিক সার্টিফিকেশন সাইটে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। জানা গেছে, উভয় স্মার্টফোনেই ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজির সমর্থন সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি থাকবে।

ভিভো ওয়াই২২ সিরিজের সম্ভাব্য স্টোরেজ ও কালার বিকল্প (Vivo Y22 series expected storage and colour options)

টিপস্টার পরাশ গুগলানি (Paras Guglani) -এর সহযোগিতায় রুটমাইগ্যালাক্সি তাদের একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছে যে, আসন্ন সিরিজটির স্ট্যান্ডার্ড মডেল অর্থাৎ ভিভো ওয়াই২২ ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ সহ আসবে। অন্যদিকে, ভিভো ওয়াই২২এস ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ কনফিগারেশন বিকল্প অফার করবে। এছাড়া জানা গেছে, ভিভোর এই লাইনআপটি – সামার সায়ান এবং স্টারলাইট ব্লু কালার ভ্যারিয়েন্টে আসতে পারে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের আগস্ট মাসে Vivo Y21 স্মার্টফোনটি ভারতে পা রেখেছিল। এটির ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ অপশনকে ১৫,৪৯০ টাকায় লঞ্চ করা হয়েছিল। হ্যান্ডসেটটি – ডায়মন্ড গ্লো এবং মিডনাইট ব্লু কালারে এসেছিল।

ভিভো ওয়াই২২ সিরিজের সম্ভাব্য স্পেসিফিকেশন (Vivo Y22 series expected specifications)

সাম্প্রতিক রিপোর্টে অনুসারে, ভিভো ওয়াই২২ সিরিজ অন্তর্গত দুটি স্মার্টফোনই অনুরূপ স্পেসিফিকেশন সহ আসবে। সেক্ষেত্রে, হ্যান্ডসেটগুলিতে একটি ৬.৪৪-ইঞ্চি এইচডি প্লাস (৭২০x১,৬০০ পিক্সেল) LCD ডিসপ্লে দেওয়া হবে। এই ডিসপ্লেটির ডিজাইন ওয়াটার-ড্রপ স্টাইলের হবে এবং ৮৯% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও সমর্থন করবে। তবে, ভিভো ওয়াই২২, ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট এবং ভিভো ওয়াই২২এস, ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করতে পারে।

আপকামিং Vivo Y22 লাইনআপে, আইএমজি পাওয়ারভিআর জিই৮৩২০ (IMG PowerVR GE8320) জিপিইউ সহ একটি স্ট্যান্ডার্ড চিপসেট ব্যবহার করা হতে পারে। আবার অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে ওয়াই-সিরিজের উভয় মডেলেই অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভার্সন বিদ্যমান থাকতে পারে। এই আসন্ন ফোনগুলিতে ১ জিবি পর্যন্ত ভার্চুয়াল র‌্যাম সমর্থন করবে এবং ইন্টারনাল স্টোরেজ বর্ধিত করার জন্য মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট দেওয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ভিভো ওয়াই২২ এবং ওয়াই২২এস মডেল দুটির রিয়ার ক্যামেরা সম্পর্কে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে টিপস্টার প্রদত্ত তথ্য অনুসারে, উভয় ডিভাইসেই ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

তদুপরি, নিরাপত্তার জন্য আসন্ন স্মার্টফোনগুলি সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এবং ফেস আনলক টেকনোলজির সমর্থন সহ আসতে পারে। এছাড়া, পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য Vivo Y22 এবং Vivo Y22s স্মার্টফোনে হয়তো ১৮ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সমর্থিত একটি ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি থাকবে।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন