পিছিয়ে গেল Vivo T2 5G এর লঞ্চের তারিখ, কবে লঞ্চ হবে জেনে নিন

ভিভো চীনা মাইক্রোব্লগিং সাইট ওয়েইবো-এর একটি পোস্টে নিশ্চিত করেছে যে, আজ চীনে ভিভো টি২ ৫জি-এর যে লঞ্চ ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, তা অনিবার্য কারণে স্থগিত করা হয়েছে

vivo-t2-5g-launch-date-postponed-will-be-unveiled-soon-specifications

আজ (২৩ মে) চীনের বাজারে জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ভিভোর T-সিরিজে অন্তর্ভুক্ত নতুন Vivo T2 5G হ্যান্ডসেটটি লঞ্চ হওয়ার কথা ছিল। এই ফোনটি গত বছর লঞ্চ হওয়া Snapdragon 778G-চালিত Vivo T1 5G-এর উত্তরসূরি হিসেবে বা পা রাখবে বলে জানা গেছে। এমনকি গত সপ্তাহে, এর প্রি-অর্ডার প্রক্রিয়াটিও শুরু হয়ে গেছে। তবে এখন, সংস্থা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে জানিয়েছে যে, আপকামিং Vivo T2 5G-এর লঞ্চ ইভেন্টটি স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু এর পাশাপাশি ভিভো এও নিশ্চিত করেছে যে, আসন্ন ডিভাইসটি আগামী মাসে অর্থাৎ জুনে দেশীয় বাজারে আত্মপ্রকাশ করবে।

Vivo T2 5G- এর লঞ্চ পিছলো, আসবে আগামী মাসে

ভিভো চীনা মাইক্রোব্লগিং সাইট ওয়েইবো (Weibo)-এর একটি পোস্টে নিশ্চিত করেছে যে, আজ চীনে ভিভো টি২ ৫জি-এর যে লঞ্চ ইভেন্টটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, তা অনিবার্য কারণে স্থগিত করা হয়েছে। তবে এর সাথেই সংস্থা লঞ্চের পরিবর্তিত সময়সূচিটিও ঘোষণা করেছে। জানানো হয়েছে, আগামী ৬ জুন সন্ধ্যা ৭ টায় (স্থানীয় সময়) ভিভো টি২ ৫জি-এর ওপর থেকে পর্দা সরানো হবে। মনে করা হচ্ছে, চীনে পুনরায় কোভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাবের কারণেই সংস্থা এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছে।

জানিয়ে রাখি, Vivo T2 5G-এর প্রোডাক্ট পেজটি বর্তমানে জেডি.কম (JD.com)-এ উপলব্ধ রয়েছে, যা এর কিছু প্রধান স্পেসিফিকেশন প্রকাশ করেছে। তালিকা অনুযায়ী, আসন্ন হ্যান্ডসেটটি অ্যামোলেড ই৪ (AMOLED E4) ডিসপ্লের সাথে আসবে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করবে এবং এটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ চিপসেট দ্বারা চালিত হবে। ফটোগ্রাফির জন্য, Vivo T2 5G-এ অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলিজেশন (OIS) সহ ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রধান ক্যামেরা উপস্থিত থাকবে। পাওয়ার ব্যাকআপের ক্ষেত্রে, ফোনটিতে ৮০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি সাপোর্ট করবে।

এছাড়াও, কিছু সাম্প্রতিক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, Vivo T2 5G মডেলটি সাব-ব্র্যান্ড আইকো-এর Neo 6 SE হ্যান্ডসেটের রিব্র্যান্ডেড সংস্করণ হিসেবে বাজারে আত্মপ্রকাশ করবে। সদ্য লঞ্চ হওয়া এই আইকো ফোনে ৬.৬২ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে, যা ফুল-এইচডি+ রেজোলিউশন এবং ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট অফার করে। ডিভাইসটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৭০ প্রসেসর দ্বারা চালিত। এতে ১২ জিবি পর্যন্ত এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম এবং সর্বাধিক ২৫৬ জিবি ইউএফএস ৩.১ স্টোরেজ পাওয়া যায়।

ফটোগ্রাফির জন্য, iQOO Neo 6 SE- এর ব্যাক প্যানেলে অবস্থিত ট্রিপল ক্যামেরা ইউনিটের মধ্যে অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন (OIS) সাপোর্ট
সহ ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো সেন্সর উপস্থিত রয়েছে। আবার সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য ফোনের সামনে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, iQOO Neo 6 SE-এ ৪,৭০০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে, যা ৮০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক আইকো ইউআই (iQOO UI) কাস্টম স্কিনে রান করে। এছাড়া নিরাপত্তার জন্য, এতে একটি ইন-স্ক্রিন ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারও মিলবে। উল্লেখ্য, চীনের মার্কেটে iQOO Neo 6 SE-এর প্রারম্ভিক মূল্য ১,৯৯৯ ইউয়ান (প্রায় ২৩,২৫০ টাকা)।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

Ananya graduated with a degree in Journalism and Mass Communication And she loves to read and write, enjoys music and is very interested in technology