Tesla-র প্রাক্তনীকে দলে টেনে স্বয়ংচালিত গাড়ির স্বপ্নে বিভোর Apple

ক্রিস্টোফার সিজে মুর বলে টেসলার স্বয়ংক্রিয় সঞ্চালন ব্যবস্থা বা অটোপাইলট সিস্টেম বিভাগের এক প্রাক্তন ইঞ্জিনিয়ারকে নিয়োগ করেছে অ্যাপল

সবার আগে অটোনোমাস ‘স্মার্ট-কার’-এ হাতেখড়ি করার কথা ছিল অ্যাপল (Apple)-এর। কিন্তু অ্যাপলকে টেক্কা দিয়ে তাদের আগেই অত্যাধুনিক স্বয়ংক্রিয় গাড়ি এনে বাজিমাত করেছিল ইলন মাক্স (Elon Mask)-এর সংস্থা টেসলা (Tesla)। তাই বলে হতোদ্যম হয়ে পড়েনি Apple। খোলাখুলি না জানালেও বিভিন্ন মহল থেকে খবর পাওয়া গিয়েছে, যথেষ্ট দ্রুত গতিতেই স্বয়ংক্রিয় বৈদ্যুতিক গাড়ি উন্নয়নের কাজ করছে অ্যাপল। তবে টেক জায়ান্টটির সঙ্গে বিদ্যুৎচালিত গাড়ির ব্যাটারি সরবরাহকারীদের (Suppliers) সঙ্গে আলোচনা এখনও ফলপ্রসূ হয়নি বলেই খবর। এরই মাঝে টেসলার এক প্রাক্তন ইঞ্জিনিয়ার অ্যাপলের গাড়ি প্রকল্পে যোগদান করেছেন বলে খবর সামনে এসেছে।

সূত্র উদ্ধৃত করে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়েছে। ক্রিস্টোফার সিজে মুর (Christopher CJ Moore) বলে টেসলার স্বয়ংক্রিয় সঞ্চালন ব্যবস্থা বা অটোপাইলট সিস্টেম (Autopilot System) বিভাগের এক প্রাক্তন ইঞ্জিনিয়ারকে নিয়োগ করেছে অ্যাপল। ২০১৯-এর মাঝপথেই তিনি টেসলা ছেড়েছিলেন। ঘটনাচক্রে, চলতি বছরে প্রাক্তন সংস্থার অটোলাইট সিস্টেম সম্পর্কে মন্তব্য করে তিনি বিতর্কে জড়িয়েছিলেন।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, অ্যাপলের আসন্ন স্বয়ংক্রিয় গাড়ির সফটওয়্যার নিয়ে কাজ করবেন ক্রিস্টোফার সিজে মুর। অর্থাৎ যে গোপন প্রকল্পের অধীনে এই গাড়ি তৈরির কাজ চলছে, সেই প্রজেক্ট টাইটান (Titan)-এ যোগ দেবেন তিনি। এই পদক্ষেপের থেকেই আভাস পাওয়া যায় যে, টেসলার মতো সংস্থাকে টেক্কা দিতে অ্যাপল তাদের অটোনোমাস গাড়ি তৈরির কাজ জোরকদমে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইছে।

উল্লেখ্য, নব্যরা একে একে যোগদান করলেও অ্যাপলের গাড়ি প্রকল্পের আদি সদস্যদের মধ্যে অনেকেই সংস্থা ত্যাগ করেছেন। যেমন প্রজেক্ট টাইটানের যিনি মাথা ছিলেন, তিনি চলতি বছরেই অ্যাপল ছেড়ে ফোর্ডে যোগ দিয়েছেন।

সবার আগে স্মার্টফোন ও প্রযুক্তি দুনিয়ার যাবতীয় খবর এবং গাড়ি-বাইকের সমস্ত আপডেট পেতে ফলো করুন আমাদের Google NewsTwitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।