Tecnoblade Dies: ক্যান্সার-যুদ্ধে হার, মাত্র ২৩ বছর বয়সে চলে গেলেন জনপ্রিয় ইউটিউবার

আপনারা যারা এখন ভিডিওটি দেখেছেন, জানবেন আমি মারা গিয়েছি' ২৩ বছর বয়সী ইউটিউবারের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ অনুগামীরা

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা কনটেন্টগুলির নেপথ্যে থাকা মানুষটির গুনে মুগ্ধ হয়ে আমরা অনেকেই তাদের ব্যক্তিগত জীবনে উঁকি দিতে উৎসুক হয়ে পড়ি। কিন্তু স্ক্রিনের ওপারে থাকা মানুষটির মুখ দেখে বা কণ্ঠস্বর শুনে তার জীবনযুদ্ধের আভাস পাওয়া সম্ভব হয়না। ঠিক যেমন টেকনোব্লেড (Technoblade) ছদ্মনামে প্রখ্যাত গেমিং ভিডিও নির্মাতা ইউটিউবার (Youtuber) অ্যালেক্সের সাথে ঘটে যাওয়া ‘ট্রাজেডি’ এর কথা সামনে এলো তার মৃত্যুর পর। প্রায় এক মাসের ব্যবধানে টেকনোব্লেড চ্যানেলে নতুন ভিডিও পোস্ট করার নোটিফিকেশন দেখে যথেষ্টই উচ্ছ্বসিত হয়েছিল ফ্যান-বেস। কিন্তু মুহূর্তের মধ্যে অনুগামীদের মুখের হাসি কেড়ে নেয় এই ভিডিও। অ্যালেক্স খোদ নিজের মৃত্যু বার্তা রেকর্ড করেছিল তার শেষ ভিডিওতে! জানা যাচ্ছে, ফোর্থ-স্টেজ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ২৩ বছর বয়সে প্রয়াত হন এই জনপ্রিয় ইউটিউবার।

প্রয়াত জনপ্রিয় ইউটিউবার Technoblade

টেকনোব্লেড ওরফে অ্যালেক্স, নিজের পরিচয় গোপন রেখে গেমিং ভিডিও বানাতেন ইউটিউবে এবং দীর্ঘ ৮ বছরের কঠোর পরিশ্রমে তার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ১১ মিলিয়ন বা ১ কোটির গন্ডি পেরিয়ে গিয়েছিল। অ্যালেক্স মূলত মাইনক্রাফ্ট ভিত্তিক ভিডিও বানাতেন। গেমিংয়ের উপর দক্ষতা এবং প্রতিটি পর্যায়কে মজাদার ভঙ্গিতে ব্যাখ্যা করার প্রতিভা, টেকনোব্লেডকে গেমারদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় করেছিল। কিন্তু, গেম পাগল এই মানুষটিকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেও, হেরে যেতে হয়েছে ক্যান্সারের কাছে। নিজের মৃত্যু আসন্ন বুঝতে পেরে অনুগামীদের উদ্দেশ্য করে শেষবারের মতো একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন আলেক্স। আর বাবার হাতে দিয়ে গিয়েছিলেন একটি চিঠি।

বৃহস্পতিবার টেকনোব্লেডের ইউটিউব অ্যাকাউন্টে “so long nerds” শিরোনামের একটি নতুন ভিডিও আপলোড করা হয়েছিল। মাইনক্রাফ্টের রঙিন ব্লকের পরিবর্তে, ভিডিওটিতে সাদা ব্যাকড্রপের সামনে এক ব্যক্তিকে বসে থাকতে দেখা গেছে। যিনি নিজেকে টেকনোব্লেডের বাবা হিসাবে পরিচয় দিয়েছেন। ভিডিওটিতে তাকে ছেলের লেখা শেষ চিঠি পড়তে দেখা গেছে। ভিডিওটি শুরু হয়েছে কিছুটা এই ভাবে, “হ্যালো সবাইকে। আমি টেকনোব্লেড। আপনারা যারা এখন ভিডিওটি দেখছেন, তারা জানবেন আমি মারা গিয়েছি।” আসলে অ্যালেক্স ভালো করেই জানতেন এটাই তার শেষ ভিডিও। তাই নিঃস্বার্থভাবে সাপোর্ট করার জন্য ইউটিউবার তার প্রিয় ফ্যানদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আর ভিডিওর শেষে, “আরও একশোটা জীবন পেলেও অ্যালেক্স হয়েই জন্মাতে চাই” বলে জানিয়েছেন তিনি।

টেকনোব্লেডের বাবা জানান, এই চিঠিটি লেখার প্রায় আট ঘন্টা পর মারা যায় টেকনোব্লেড। একই সাথে, তিনি প্রথমবারের জন্য ছেলের আসল নাম এবং তার কিছু ছবি প্রকাশ্যে আনেন এই ভিডিওর মাধ্যমে। অন্যদিকে অ্যালেক্সের মা জানিয়েছেন যে, তার ছেলে কখনই ব্যক্তিগত খ্যাতি চায়নি। ভাই বোনদের পড়াশোনা সচল রাখতে, ক্যান্সার আক্রান্তদের জন্য চ্যারিটি স্ট্রিম করে পাশে থাকতে, পুরস্কৃত করার মাধ্যমে গেমারদের উৎসাহিত করতে এবং মাইনক্রাফ্ট খেলার অভিজ্ঞতাকে সকলের সাথে ভাগ করে নেওয়াই ছিল টেকনোব্লেড ওরফে আলেক্সের মূল উদ্দেশ্য।

প্রসঙ্গত, গত বছর অগাস্ট মাসে একটি ভিডিও পোস্ট করে ক্যান্সার আক্রান্ত হওয়ার খবর অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করেন টেকনোব্লেড। দীর্ঘ ১১ মাস ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন এই জনপ্রিয় ইউটিউবার। টেকনোব্লেডের বাবার মাধ্যমে প্রকাশ্যে আসা এই শেষ ভিডিও ৪০মিলিয়ন দর্শকদের চোখে জল এনেছে।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।