Samsung ফোন ও ট্যাবলেট সারাই হবে অনেক কম খরচে, চালু হচ্ছে সার্টিফাইড রিসাইকেলড পার্টস প্রোগ্রাম

স্যামসাং নতুন যন্ত্রাংশের মতো গুণমান এবং কার্যক্ষমতা নিশ্চিত করার জন্য এবং একই সাথে খরচ কমানোর জন্য পুনর্ব্যবহৃত যন্ত্রাংশ ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে

স্যামসাং চলতি বছরের প্রথমার্ধেই চালু করার পরিকল্পনা করছে ম্যানুফ্যাকচারার সার্টিফাইড রিসাইকেলড পার্টস প্রোগ্রাম (Manufacturer-certified recycled parts programme)- এমনটাই উঠে এল একটি রিপোর্ট থেকে। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেকট্রনিক্স সংস্থাটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একটি সেল্ফ-রিপেয়ার প্রোগ্রাম (Self-repair programme) চালু করেছে, যা স্যামসাং ডিভাইস ব্যবহারকারীদের আসল ডিভাইসের যন্ত্রাংশ, মেরামতের সরঞ্জাম এবং স্মার্টফোন ও ট্যাবলেটগুলির মেরামতের নির্দেশিকা প্রদান করবে। তবে নতুন রিপোর্টে বলা হয়েছে, সংস্থাটি একটি নতুন পরিষেবার অধীনে রিসাইকেলড বা পুনর্ব্যবহৃত অংশ সরবরাহ করবে যা ডিভাইসের মেরামতের খরচ অনেক কমিয়ে দেবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক অতীতে ফোনে গেম অপ্টিমাইজিং সার্ভিস (GOS) কেলেঙ্কারির জন্য স্যামসাংকে বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়েছিল। তাই মনে করা হচ্ছে, এই পরিবেশ-বান্ধব পদ্ধতির মাধ্যমে, সংস্থাটি এখন তাদের গ্রাহকদের আস্থা পুনরুদ্ধার করার চেষ্টায় নিয়োজিত হয়েছে।

চালু হচ্ছে Samsung-এর নতুন recycled parts programme

বিজনেস কোরিয়া (Business Korea)- এর নতুন রিপোর্ট অনুযায়ী, স্যামসাং নতুন যন্ত্রাংশের মতো গুণমান এবং কার্যক্ষমতা নিশ্চিত করার জন্য এবং একই সাথে খরচ কমানোর জন্য পুনর্ব্যবহৃত যন্ত্রাংশ ব্যবহার করার পরিকল্পনা করছে। যদি স্যামসাংয়ের এই প্রোগ্রামটি বাস্তবায়িত হয়, তাহলে স্মার্টফোনের ক্ষতিগ্রস্থ ডিসপ্লে মেরামতের সাধারণ খরচ বর্তমানের তুলনায় অর্ধেক হয়ে যেতে পারে।

সম্প্রতি স্যামসাং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একটি সেল্ফ-রিপেয়ার প্রোগ্রাম চালু করেছে, যা ব্যবহারকারীদের পুনর্ব্যবহার করার জন্য কোম্পানির কাছে ব্যবহৃত অংশ ফেরত দেওয়ার আহ্বান করা হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে যে, কোম্পানি এই রিসাইকেলড পার্টস প্রোগ্রামের জন্য এই অংশগুলিই ব্যবহার করতে পারে। সংস্থার এই পদক্ষেপ ফেলে দেওয়া স্মার্টফোনগুলি থেকে তৈরি হওয়া ইলেকট্রনিক বর্জ্যের পরিমাণ হ্রাস করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জানিয়ে রাখি, বর্তমানে স্যামসাংকে তাদের গেম অপ্টিমাইজিং সার্ভিস (GOS) এর জন্য সমালোচিত হতে হয়েছে। সংস্থাটি উন্নত গেমিং পারফরম্যান্স প্রদান করার জন্য তাদের গ্যালাক্সি ডিভাইসগুলিতে জিওএস ফিচারটি উন্মোচন করে। প্রাথমিক স্তরে, এই ফিচারটি ম্যানুয়ালি বন্ধ করা যায়নি এবং এর কারণে বেশ কিছু ব্যবহারকারীর ফোনে গেমের গুণমান হ্রাস পায়। একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়, এই বিতর্কের সরাসরি প্রভাব সম্প্রতি লঞ্চ হওয়া Samsung Galaxy S22 সিরিজের বিক্রির ওপরও পড়েছে। আর তাই এই ফ্ল্যাগশিপ হ্যান্ডসেটগুলির দাম কিছুটা কমানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন