Reliance Jio vs Airtel: ১৭৯ টাকার প্রিপেইড প্ল্যানে কোন সংস্থা দিচ্ছে বেশি সুবিধা? দেখে নিন বিশদ

reliance-jio-bharti-airtel-rs-179-prepaid-plan-benifit-comparison-who-gives-more-facility

আমরা সকলেই জানি যে, দেশের শীর্ষস্থানীয় টেলিকম কোম্পানি Reliance Jio (রিলায়েন্স জিও) অন্যদের চাইতে খানিকটা সস্তায় ইউজারদের একাধিক রিচার্জ প্ল্যান অফার করে। কিন্তু তাই বলে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানি হিসেবে পরিচিত Airtel (এয়ারটেল) যে পিছিয়ে রয়েছে, তা কিন্তু একেবারেই নয়। গ্রাহক টানার লড়াইয়ে একগুচ্ছ সাশ্রয়ী মূল্যের প্রিপেইড প্ল্যানের সম্ভার নিয়ে তারাও সর্বদা কোমর বেঁধে মাঠে নেমে রয়েছে।

কিন্তু এই সেরা দুই কোম্পানির মধ্যে কার প্ল্যান রিচার্জ করা সুবিধাজনক হবে, সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে অনেকেই বেশ বিভ্রান্ত হয়ে যান। তার মূল কারণ হল, দুটি সংস্থার বেশ কয়েকটি প্রিপেইড প্ল্যানের দাম একই, কিন্তু তাতে উপলব্ধ সুবিধাগুলি আলাদা আলাদা। তাই কোন সংস্থার প্ল্যান রিচার্জ করলে বেশি লাভবান হওয়া যাবে, তা অনেকেই ঠিক বুঝে উঠতে পারেন না। সেক্ষেত্রে যারা এই দুই কোম্পানির কোনো সাশ্রয়ী মূল্যের রিচার্জ প্ল্যানের সন্ধান করছেন, তাদের সুবিধার্থে এই প্রতিবেদনে আমরা উভয় সংস্থার ১৭৯ টাকার রিচার্জ প্ল্যানের তুল্যমূল্য বিচার করতে চলেছি। ফলে ইউজাররা খুব সহজেই নিজেদের পছন্দানুযায়ী প্রিপেইড প্ল্যানটি রিচার্জ করতে সক্ষম হবেন।

Airtel-এর ১৭৯ টাকার প্ল্যান

এই প্ল্যানে সংস্থাটি তার ব্যবহারকারীদের মোট ২ জিবি হাই-স্পিড ডেটা, যেকোনো নেটওয়ার্কে আনলিমিটেড ভয়েস কলিং এবং ৩০ টি এসএমএসের সুবিধা প্রদান করে। উপরন্তু এক্সট্রা বেনিফিট হিসেবে, এই প্ল্যানে রয়েছে ৩০ দিনের জন্য Amazon Prime Video Mobile Edition-এর ফ্রি ট্রায়াল, ফ্রি Hello Tunes এবং বিনামূল্যে Wynk Music-এর সাবস্ক্রিপশনের সুবিধা। এই প্রিপেইড প্ল্যানটির ভ্যালিডিটি ২৮ দিন।

Jio-র ১৭৯ টাকার প্ল্যান

জিও-র এই প্ল্যানের মেয়াদ ২৪ দিন। এই প্ল্যানে প্রতিদিন ১ জিবি করে হাই-স্পিড ডেটা, যে-কোনো নেটওয়ার্কে আনলিমিটেড ভয়েস কলিং এবং রোজ ১০০টি করে এসএমএস করার সুবিধা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, এই প্ল্যানে মোট ২৪ জিবি ডেটা ব্যবহারের সুযোগ পাবেন ইউজাররা। এছাড়া, এক্সট্রা বেনিফিট হিসেবে মিলবে JioCinema, JioTV, JioSecurity, এবং JioCloud-এর ফ্রি সাবস্ক্রিপশন।

প্ল্যান দুটির পার্থক্য

প্ল্যান দুটির পার্থক্যের কথা বলতে গেলে, যারা বেশি ডেটা ব্যবহার করতে চাইছেন, তাদের জন্য জিও-র প্ল্যানটি এককথায় আদর্শ। কারণ, জিও-র প্ল্যানে পাওয়া যাচ্ছে মোট ২৪ জিবি ডেটা, যেখানে এয়ারটেল মাত্র ২ জিবি ডেটা ব্যবহারের সুযোগ দিচ্ছে ইউজারদের। আবার, যারা বেশি ভ্যালিডিটি পাওয়ার দিকে আগ্রহী, তারা এয়ারটেলের প্ল্যানটি রিচার্জ করতে পারেন। কারণ, মুকেশ আম্বানির মালিকানাধীন সংস্থার তুলনায় এয়ারটেলের প্ল্যানটির মেয়াদ খানিকটা বেশি। এছাড়া, এয়ারটেলের চাইতে ইউজারদেরকে অনেক বেশি মেসেজ করার সুযোগ দিচ্ছে জিও। তাই সবদিক বিচার-বিবেচনা করলে, জিও-র ১৭৯ টাকার প্ল্যানটি রিচার্জ করাই অধিক লাভজনক হবে বলে মনে করা যেতে পারে।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

One of the newest members of the Techgup Family. Soumo grew his liking for gadgets almost a decade back while searching for his first smartphone, and started writing about tech recently in 2020