Snapdragon vs MediaTek: কোন প্রসেসরটি আপনার ফোনের জন্য সবচেয়ে ভালো? পার্থক্য জেনে নিন

Snapdragon নাকি Mediatek, কোন প্রসেসর আপনার বেছে নেওয়া উচিত

qualcomm-snapdragon-vs-mediatek-chipset-comparison-which-one-good-for-smartphone

আজকের আধুনিক যুগে অধিকাংশ মানুষই নানাবিধ স্মার্ট ডিভাইসের উপর নির্ভরশীল হয়ে উঠেছে, যার মধ্যে অন্যতম একটি হল স্মার্টফোন। এখন কমবেশি সকলের হাতেই অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের দেখা মেলে। বর্তমানে দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হিসেবে সর্বজনবিদিত এই ডিভাইসটির এক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল প্রসেসর, যেটি ছাড়া ফোন একেবারেই অকেজো। আর অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয় দুটি প্রসেসর প্রস্তুতকারক সংস্থা হল মিডিয়াটেক (MediaTek) এবং কোয়ালকম (Qualcomm)। উভয় কোম্পানিই তাদের প্রসেসরগুলিকে আরও উন্নত করার জন্য ক্রমাগত কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে কোনো নতুন ফোন কেনার আগে ইউজারদের মাথায় সর্বপ্রথম এখন একটা প্রশ্নই উত্থাপিত হয় – মিডিয়াটেক (Mediatek) নাকি কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন (Qualcomm Snapdragon), কোন প্রসেসরটি ভালো?

সেক্ষেত্রে আপনি যদি হালফিলে নতুন কোনো অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন (Android Smartphone) কেনার কথা ভেবে থাকেন, আর আপনার মাথায়ও যদি এই একই প্রশ্ন আসে, তাহলে আমাদের আজকের এই প্রতিবেদনটি একবার পুরোটা পড়ুন। আজ আমরা আপনাদেরকে Mediatek এবং Snapdragon প্রসেসর সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানাতে চলেছি। ফলে এই প্রতিবেদনটি পড়ে নিলেই আপনি খুব সহজেই জানতে পারবেন যে কোন প্রসেসরটি আপনার জন্য সেরা।

Mediatek প্রসেসরের বিশেষত্ব

শুরুর দিকে মিডিয়াটেকের প্রসেসরগুলি সস্তা এবং বাজেট রেঞ্জের প্রসেসর হিসেবে পরিচিত ছিল। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে এই প্রসেসরগুলি আগের তুলনায় অনেক বেশি ফাস্ট হয়েছে, যার ফলে এখন গেমিং ফোনেও এই চিপসেট ব্যবহার করা হচ্ছে। কমদামি হওয়ার দরুন চলতি সময়ে এই কোম্পানির বেশিরভাগ প্রসেসর বাজেট এবং মিড-রেঞ্জের ফোনে ব্যবহৃত হয়। তবে সস্তা হলেও একগুচ্ছ অত্যাধুনিক তথা কার্যকর ফিচারের সুবাদে মিডিয়াটেক প্রসেসরের ফোনে কিন্তু ইউজাররা মাল্টি-টাস্কিং এবং ভারী কাজ অতি অনায়াসে সম্পন্ন করতে পারেন। এইকারণে হালফিলে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসরকে কিন্তু মিডিয়াটেক জোর টক্কর দিচ্ছে।

কিন্তু প্রশ্ন হল, এত গুণাবলী থাকা সত্ত্বেও হাই-এন্ড ফোনে কেন মিডিয়াটেক প্রসেসর কম ব্যবহার করা হয়? এর উত্তর হল এই প্রসেসরের কম স্থায়িত্ব। অর্থাৎ, সময়ের সাথে সাথে মিডিয়াটেকের প্রসেসরগুলি স্লো হয়ে যায়, ফলে স্মার্টফোনের পারফরম্যান্সও ধীরে ধীরে খারাপ হতে থাকে। তবে আপনি যদি এমন কোনো অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সন্ধানে থাকেন যেটি অন্ততপক্ষে দু-তিন বছর দুরন্ত সার্ভিস দিতে সক্ষম, তাহলে আপনি নির্দ্ধিধায় মিডিয়াটেক প্রসেসর দ্বারা চালিত স্মার্টফোন কিনতে পারেন। উল্লেখ্য, মিডিয়াটেকের লেটেস্ট প্রসেসরগুলির মধ্যে অন্যতম হল মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০০ ( Mediatek Dimensity 8100 এবং ডাইমেনসিটি ১৩০০ (Dimensity 1300)। এই প্রসেসরগুলির দ্বারা চালিত ফোনে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স এবং ভালো ব্যাটারি লাইফ পাওয়া যাবে।

Snapdragon প্রসেসরের বিশেষত্ব

কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর ইউজারদের কাছে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়। প্রধানত একটু ব্যয়বহুল এবং প্রিমিয়াম ফোনগুলিতেই এই চিপসেট ব্যবহৃত হয়। এই প্রসেসর দ্বারা চালিত ফোনে ইউজাররা বহুদিনব্যাপী দুর্দান্ত পারফরম্যান্স পেতে সক্ষম হবেন। কোয়ালকম তার স্ন্যাপড্রাগন সিরিজের অধীনে এখনও পর্যন্ত অষ্টম প্রজন্মের প্রসেসর বাজারে লঞ্চ করেছে। সংস্থার লেটেস্ট প্রসেসরটি হল স্ন্যাপড্রাগন ৮ প্লাস জেন ১ (Snapdragon 8+ Gen 1), যা ৩.২ গিগাহার্টজ পর্যন্ত ক্লক স্পিড এবং অক্টা কোর সাপোর্টসহ এসেছে। এছাড়া, কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৭ জেন ১ (Snapdragon 7 Gen 1) বর্তমানে মিড-রেঞ্জ স্মার্টফোনের জন্য সবচেয়ে লেটেস্ট এবং শক্তিশালী প্রসেসর। মূলত এই প্রসেসরের স্থায়িত্ব বেশি হওয়াতেই হাই-এন্ড স্মার্টফোনে এর দেখা মেলে, আর সেই কারণে দাম বেশি হওয়া সত্ত্বেও অধিকাংশ ইউজাররাই স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর দ্বারা চালিত হ্যান্ডসেট সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।