পুরনো Bullet কেনার ভাবনা? তার আগে এই আইকনিক মোটরসাইকেলের ভাল-মন্দ জেনে নিন

planning-to-buy-old-royal-enfield-bullet-350-know-the-pros-and-cons

ব্র্যান্ডের থেকেও একটি নির্দিষ্ট মডেল লেজেন্ডারি তকমা পেয়েছে এমন দু’চাকার প্রসঙ্গে আসলেই সবার প্রথমে Royal Enfield Bullet 350 এর নাম উচ্চারিত হয়। রয়্যাল এনফিল্ড একের পর এক নতুন ও উন্নত মডেল লঞ্চ করলেও আজকের দিনে বুলেটের কদরই আলাদা। এই আইকনিক মোটরসাইকেলের চাহিদা হাতফেরতা গাড়ির বাজারেও চোখে পড়ার মতো। ২০০৭ সাল থেকে বর্তমান প্রজন্মের বুলেট ভারতে বিক্রি হয়ে আসছে। ফলে সেকেন্ড হ্যান্ড মডেল কিনলে অনেকটা টাকা সাশ্রয় করা যাবে ঠিকই। তবে কেনার আগে জেনে রাখা উচিত পুরনো বুলেটের ভাল ও মন্দ দিকগুলি। এই প্রতিবেদনে সেগুলি নিয়েই আলোচনা রইল।

ভালো দিক

রাস্তায় পথচারী হোক বা অন্য গাড়িতে সওয়ার হওয়া কেউ, সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে বুলেটের জুড়ি মেলা ভার। রয়্যাল এনফিল্ড একাদশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়েও বাইকটির ওল্ড স্কুল রেট্রো স্টাইলিং সযত্নে বাঁচিয়ে রেখেছে। এর কালো রঙের উপর হাতে আঁকা সোনালী রঙের কাজ নজর কাড়ে। চোখে না পড়লেও ইঞ্জিনের শব্দই বলে দেয় ওই যে বুলেট আসছে।

বুলেটের চালিকাশক্তি যোগায় টুইনস্পার্ক প্রযুক্তি-সহ ৩৪৬ সিসির, সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ইউনিট কনস্ট্রাকশন ইঞ্জিন (UCE)। ৫ স্পিড গিয়ার বক্স যুক্ত এই ইঞ্জিনের সর্বোচ্চ শক্তি ও টর্ক যথাক্রমে ১৯.১ বিএইচপি ও ২৮এনএম। ইঞ্জিনের সক্ষমতার জন্য বুলেট নিয়ে যে কোনো জায়গায় স্বাচ্ছন্দে ঘোরাফেরা করা সম্ভব। বহু মানুষ লাদাখ ভ্রমণের জন্য বুলেটকেই পছন্দ করেন। আবার বুলেটের নতুন সংস্করণে ফুয়েল ইঞ্জেকশন, ডিস্ক ব্রেক ও এবিএস-এর মত আধুনিক বৈশিষ্ট্যগুলি যুক্ত হয়েছে।

খারাপ দিক

বুলেট যে আসলে সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত ট্যাংকের ন্যায়, তা চালাতে গেলেই অনুভূত হবে। সম্পূর্ণ মেটাল দ্বারা নির্মিত বুলেটের কার্ব ওজন ১৮৬ কেজি। আর তেল ভরা অবস্থায় ওজন প্রায় ২০০ কেজি দাঁড়ায়। অনেক রাইডারের কাছেই এত বিপুল ওজন বিড়ম্বনার কারণ সৃষ্টি করে। রয়্যাল এনফিল্ড বুলেটের বিএস-৬ ভার্সনে একাধিক অদলবদল করলেও, বিএস-৩ বা বিএস-৪ নির্গমন বিধি-সহ আসা পুরনো সংস্করণগুলি ততটা উন্নত নয়। সে ক্ষেত্রে কেনার আগে ভাল করে টেস্ট রাইড নিয়ে কোয়ালিটি পরখ করে নিতে হবে।

রয়্যাল এনফিল্ড বুলেট প্রকৃতপক্ষে একটি টর্কপ্রধান ইঞ্জিন, যার শুরুর ও মাঝের দিকের পারফরম্যান্স যথেষ্ট ভালো। কিন্তু এর টপ লেভেল পারফরম্যান্স তেমন ভালো নয়‌। উপরন্তু আমরা জানি রয়্যাল এনফিল্ড বাইকগুলি যথেষ্ট দামি। ইউজড মার্কেটেও ভ্যালু বেশি থাকার কারণে দাম চড়া হয়। ২০০৭-এ তৈরি বা তার পরে বাজারে আসা বুলেটের মূল্য ৮৫ হাজার থেকে ১.২ লাখ এমনকি তার বেশিও হতে পারে।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন