OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro: ওয়ানপ্লাস ১০টি নাকি ১০ প্রো, ফ্ল্যাগশিপ রেঞ্জে কে দেবে কাকে টেক্কা

নবাগত OnePlus 10T নাকি বিদ্যমান OnePlus 10 Pro - কোন স্মার্টফোনটি খরিদ করা বেশি লাভজনক হবে জেনে নিন

oneplus-10t-vs-oneplus-10-pro-comparison-specifications-price-in-india-which-one-should-you-buy

গতকাল অর্থাৎ ৩রা আগস্ট ভারত সহ বিশ্ববাজারে আত্মপ্রকাশ করেছে OnePlus 10T। এটি কোয়ালকমের লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮+ জেন ১ প্রসেসর এবং ১৫০ওয়াট সুপারভোক এন্ডিওরেন্স এডিশন ফাস্ট ওয়্যারড চার্জিং টেকনোলজির সাপোর্ট সহ এসেছে, যা সেই সকল গ্ৰাহক তথা গেমারদের অধিক আকৃষ্ট করবে, যারা শক্তিশালী চিপসেট ও ফাস্ট চার্জিংয়ের মতো বৈশিষ্ট্যের ফোন খুঁজছেন। জানিয়ে রাখি, সদ্য আগত এই ফোনটি মূলত গত ৫ই এপ্রিল লঞ্চ হওয়া OnePlus 10 Pro মডেলের সস্তা সংস্করণ হিসাবে এসেছে। এরপরও উভয় ফোনেই – ৬.৭ ইঞ্চির ফ্লুইড অ্যামোলেড ডিসপ্লে প্যানেল, লেটেস্ট কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন এসওসি, ২৫৬ জিবি পর্যন্ত ইন্টারনাল স্টোরেজ, অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক কাস্টম ওএস, ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এবং ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বর্তমান। তাহলে Pro মডেলে কি বিশেষ কিছুই নেই? নতুন OnePlus 10T নাকি বিদ্যমান OnePlus 10 Pro – কোন স্মার্টফোনটি খরিদ করা বেশি লাভজনক প্রমাণিত হবে? আসুন জেনে নেওয়া যাক

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : ডিসপ্লে

ডুয়েল-সিমের (ন্যানো) ওয়ানপ্লাস ১০টি স্মার্টফোনে ৬.৭ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪১২ পিক্সেল) ফ্লুইড অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে, যা লো-টেম্পারেচার পলিক্রিস্টালাইন অক্সাইড (LTPO) প্রযুক্তির ওপর ভিত্তি করে নির্মিত। এই ডিসপ্লেটি কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫ ডাটা সুরক্ষিত এবং ১২০ হার্টজ পর্যন্ত রিফ্রেশ রেট, এসআরজিবি (sRGB) কালার গ্যামেট, ১০-বিট কালার ডেপ্থ এবং এইচডিআর১০+ টেকনোলজি সাপোর্ট করে। নিরাপত্তার জন্য, এতে একটি ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এবং ফেস আনলক ফিচারও মিলবে।

ডুয়েল সিমের ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো ফোনে দেখা যাবে গরিলা গ্লাস ভিক্টাস প্রোটেকশন সহ ৬.৭ ইঞ্চি কোয়াড এইচডি প্লাস (৩,২১৬ x ১,৪৪০ পিক্সেল) এলটিপিও ২.০ ফ্লুইড অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে, ১২০ হার্টজ পর্যন্ত অ্যাডপ্টিভ রিফ্রেশ রেট (১ হার্টজ- ১২০ হার্টজ), ৯২.৭% স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও ও ১০ বিট কালার ডেপ্থ অফার করে। তদুপরি, সিকিউরিটির জন্য এতে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর উপস্থিত।

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : প্রসেসর, অপারেটিং সিস্টেম, র‌্যাম, স্টোরেজ

অভ্যন্তরীণ স্পেসিফিকেশনের কথা বললে, ওয়ানপ্লাস ১০টি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ প্লাস জেন ১ অক্টা কোর প্রসেসর সহ এসেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক অক্সিজেনওএস ১২.১ (OxygenOS 12.1) কাস্টম স্কিনে রান করে। স্টোরেজ হিসাব ডিভাইসে, সর্বাধিক ১৬ জিবি LPDDR5 র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি পর্যন্ত UFS 3.1 ডুয়েল-লেন রম বর্তমান।

ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য, ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেন ১ প্রসেসর। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক অক্সিজেন ওএস ১২ (OxygenOS 12) ইউজার ইন্টারফেস দ্বারা চালিত। আর, ডিভাইসটি ১২ জিবি পর্যন্ত LPDDR5 র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ UFS 3.1 সহ এসেছে।

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : ক্যামেরা ফ্রন্ট

ফটোগ্রাফির ক্ষেত্রে, ওয়ানপ্লাস ১০টি ফোনে ডুয়াল এলইডি ফ্ল্যাশ সহ ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার ও অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন (OIS) সহ ৫০ মেগাপিক্সেল Sony IMX769 প্রাইমারি সেন্সর, এফ/২.২ অ্যাপারচার ও ১১৯.৯-ডিগ্রি ফিল্ড-অফ-ভিউ সহ ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শুটার। অন্যদিকে, সেলফি এবং ভিডিও চ্যাটের জন্য ডিভাইসের সামনে এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা বর্তমান।

ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো স্মার্টফোনের ব্যাক প্যানেলে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ দেখা যাবে। এই ক্যামেরাগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার ও অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন (OIS) সাপোর্ট সহ ৪৮ মেগাপিক্সেল Sony IMX789 সেন্সর, ১৫০-ডিগ্রি ফিল্ড-অফ-ভিউ সহ ৫০ মেগাপিক্সেল Samsung ISOCELL J1 আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স এবং ওআইএস (OIS) ও ৩.৩এক্স অপটিক্যাল জুম সহ ৮ মেগাপিক্সেল টেলিফটো সেন্সর। আবার, ডিসপ্লের পাঞ্চ-হোল কাটআউটের মধ্যে ৩২ মেগাপিক্সেলের Sony IMX615 সেলফি ক্যামেরা উপস্থিত।

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : ব্যাটারি

পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, ওয়ানপ্লাস ১০টি ফোনে ৪,৮০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ডুয়েল-সেল ব্যাটারি আছে, যা ১৫০ ওয়াট সুপারভোক এন্ডিওরেন্স এডিশন ওয়্যার্ড চার্জিং সাপোর্ট করে। ফোনটির রিটেইল বক্সে একটি ১৬০ ওয়াট সুপারভোক পাওয়ার অ্যাডাপ্টার দেওয়া হয়েছে। এই নতুন ওয়্যার্ড চার্জিং প্রযুক্তিটি মাত্র ১৯ মিনিটে ডিভাইসকে ফুল চার্জ করতে সক্ষম, বলে দাবি করেছে ওয়ানপ্লাস।

ব্যাটারির কথা বললে, ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো ফোনে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ডুয়েল সেল ব্যাটারি রয়েছে, যা ৮০ ওয়াট সুপারভোক এবং ৫০ ওয়াট এয়ারভোক ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির সমর্থন সহ এসেছে। এই ফোনে রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিংও সাপোর্ট করে। সংস্থার দাবি অনুসারে, সুপারভুক টেকনোলজি মাত্র ৩২ মিনিটে ফোনকে ফুল চার্জ করে দেবে। আবার এয়ারভুকের সাহায্যে ৪৭ মিনিটে ফোনটি ১০০% চার্জ হবে।

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : পরিমাপ, আইপি রেটিং

ওয়ানপ্লাস ১০টি স্মর্টফোনের পরিমাপ ১৬৩x৭৫.৩৭x৮.৭৫ মিমি এবং ওজন ২০৩ গ্রাম।

ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো স্মার্টফোনের পরিমাপ ১৬৩ x ৭৩.৯ x ৮.৬ মিমি এবং ওজন ২০১ গ্রাম।

OnePlus 10T vs OnePlus 10 Pro : দাম

ভারতীয় বাজারে ওয়ানপ্লাস ১০টি স্মার্টফোনের বেস মডেল অর্থাৎ ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ৪৬,৯৯৯ টাকা। আর, ফোনটির ১২ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ এবং টপ-অফ-দ্য-লাইন ১৬ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ অপশনের বিক্রয় মূল্য যথাক্রমে ৫৪,৯৯৯ টাকা এবং ৫৫,৯৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এটিকে জেড গ্রিন এবং মুনস্টোন ব্ল্যাক -এই দুটি স্বতন্ত্র কালার অপশনে বেছে নেওয়া যাবে।

ভারতে ওয়ানপ্লাস ১০ প্রো দুটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে উপলব্ধ। এর ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৬৬,৯৯৯ টাকা। এছাড়া ১২ জিবি র‌্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ৭১,৯৯৯ টাকা। ফোনটি দুটি কালারে এসেছে – ভলক্যানিক ব্ল্যাক ও এমারেল্ড ফ্রস্ট।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।