Tata, Mahindra-র মতো পোড়খাওয়া সংস্থার সঙ্গে পাঙ্গা, 2023-এ ইলেকট্রিক গাড়ি লঞ্চ করতে চলেছে Ola, ফার্স্ট লুক প্রকাশ্যে!

একজন দেশের ইলেকট্রিক গাড়ির দুনিয়ায় একচ্ছত্র সম্রাট। আরেকজন অগাস্টে পর্দাফাঁস করবে তাদের প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি  প্রথমটি হল টাটা (Tata) এবং দ্বিতীয় মাহিন্দ্রা (Mahindra)। এবার এই দুই দেশীয় সংস্থাকে টক্কর দিতে আসরে নামছে আর এক ভারতীয় প্রতিষ্ঠান। অ্যাপ ক্যাব হিসাবে যাত্রা শুরু করা ওলা (Ola) গত বছরের অগাস্টে তাদের প্রথম ই-স্কুটার (S1 ও S1 Pro) লঞ্চ করেছে‌‌। ক’মাসের মধ্যেই এই ধরনের দু’চাকার বাজারে অন্যতম বৃহত্তম সংস্থা হয়ে উঠেছে তারা। এবার তাদের লক্ষ্য চার চাকা। আগামী বছর ভারতে বাজারে ইলেকট্রিক গাড়ি লঞ্চ করতে চলেছে ওলা।

ভারতীয়দের জন্য একটি বিদ্যুৎচালিত এসইউভি ও প্রিমিয়াম সেডানের উপরে কাজ করছে ওলা। আজ ওলার ফিউচার ফ্যাক্টরিতে গ্রাহক উদযাপন অনুষ্ঠানে সেডানের একঝলক দেখানোও হয়েছে‌। গাড়িগুলি সংস্থার ব্যাটারি উৎপাদন কেন্দ্রের কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাওয়ার পর আত্মপ্রকাশ করবে। ২০২৩-এর শেষে৷ এমনটাই জানিয়েছেন টিপস্টার যোগেশ ব্রার। আবার নতুন চ্যাসিস ও ক্রুজ কন্ট্রোল ফিচার দিয়ে সস্তা ব্যাটারিচালিত স্কুটার লঞ্চের ভাবনাচিন্তা করছে ওলা।

Ola Electric Car লঞ্চ হবে সামনের বছর

সূত্রের দাবি, আগামী বছর সেডান ও এসইউভি সেগমেন্টে দু’টি মডেল লঞ্চ করবে ওলা। প্রথমে আসবে লং রেঞ্জ ইলেকট্রিক এসইউভি। তারপর প্রিমিয়াম সেডান। তবে ব্যাটারি তৈরির কারখানা গড়ার পরই সেগুলির নির্মাণকার্যে হাত দেবে ওলা। মোটামুটি নিশ্চিত, বৈদ্যুতিক এসইউভির হাত ধরেই চার চাকা গাড়ির বাজারে প্রবেশ ঘটবে ওলার।

এদিকে নতুন চ্যাসিসের উপর ভিত্তি করে কমদামী ই-স্কুটার নিয়ে কাজ করছে ওলা। বর্তমানে সংস্থার বৈদ্যুতিক স্কুটারের মূল্য লাখ টাকার উপরে। আপকমিং মডেলটি আমজনতার কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হবে। দাম কমাতে অনেক ফিচার বাদ দেওয়া হবে। উল্লেখ্য, Ola S1 Pro এখন দেশের বেস্ট সেলিং ইলেকট্রিক স্কুটার। এমনকি বর্তমানে দেশে সর্বাধিক বিক্রিত দশটি স্কুটারের তালিকায় নবম স্থানে এটি। লাতিন আমেরিকা ও নিউজিল্যান্ডে সেটি রপ্তানির কথাও ভাবছে ওলা।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন