সাবধান! আপনি কি WhatsApp ব্যবহার করেন? নতুন জালিয়াতির শিকার হতে পারেন

WhatsApp ব্যবহারকারীদের উপর তৈরি হয়েছে আবার একটি হ্যাকিং এর সম্ভাবনা। একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে যে, বেশ কিছু হ্যাকার নিজেদেরকে হোয়াটসঅ্যাপের টেকনিক্যাল টিমের সদস্য বলে দাবি করে ব্যবহারকারীদের সাথে জালিয়াতি করছে। এই জালিয়াতির জন্য একটি নকল হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট এর সাহায্যে নেওয়া হচ্ছে। হ্যাকারদের হোয়াটসঅ্যাপের টেকনিক্যাল টিমের অফিশিয়াল কমিউনিকেশন সোর্স।

হোয়াটসঅ্যাপ বিটা ইনফর একটি শেয়ার করা একটি টুইটে জানানো হয়েছে যে, সাইবার হ্যাকাররা WhatsApp ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে ভেরিফিকেশন কোড দাবি করেন। তবে ব্যবহারকারীরা যাতে সজাগ না হয়ে যান সেই বিষয়েও হ্যাকাররা যথেষ্ট নজর রাখে। এইজন্য হ্যাকাররা নিজেদের প্রোফাইল ফটোতে হোয়াটসঅ্যাপের লোগো রাখে যাতে দেখতে অ্যাকাউন্টটি আসল মনে হয়। এরপরে তাদের কাছে কিছু জাল মেসেজ পাঠানো হয়।

হোয়াটসঅ্যাপের লোগোর ওপর ভরসা করবেন না –

হোয়াটসঅ্যাপের প্রোফাইল ফটো দেখে সাধারণ মানুষ খুবই সহজে জালিয়াতদের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে দেন। ব্যবহারকারীদের এই ব্যাপারে সজাগ করতে হোয়াটসঅ্যাপ বিটা ইনফো জানিয়েছে যে, হোয়াটসঅ্যাপ কখনো তাদের ব্যবহারকারীদের নিজের অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে মেসেজ পাঠায় না। যদি কখনো এরকম হয় তাহলে ওই অ্যাকাউন্টের ইউজারনেমের পাশে একটি সবুজ ভেরিফিকেশন আইকন দেওয়া থাকবে। ব্যবহারকারীদের এটা জেনে রাখা উচিত যে, ফেসবুকের মালিকানাধীন এই কোম্পানি কখনোই ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে কোনরকম ভেরিফিকেশন কোডের দাবি করবে না।

যদিও এটা প্রথমবার নয় এর আগেও এরকম জালিয়াতি হয়ে গিয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ভেরিফিকেশন কোড দাবি করে হ্যাকাররা ব্যবহারকারীদের হোয়াটসঅ্যাপে খুব সহজে পৌঁছে যায়। সেখান থেকে তাদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে নেওয়া হ্যাকারদের পক্ষে খুবই সহজ। তাই এই ধরনের কোড যদি কখনো দাবি করা হয় তাহলে, তার থেকে সতর্ক থাকুন।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।