Motorola Edge 30 5G লঞ্চের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে, পেয়ে গেল NBTC সার্টিফিকেশন

XT2203-1 মডেল নম্বর সহ একটি নতুন মোটোরলা ডিভাইস থাইল্যান্ডের ন্যাশনাল ব্রডকাস্টিং অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন কমিশন (NBTC) সার্টিফিকেশন ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত হয়েছে

গত জানুয়ারিতে Motorola Edge 30 Pro ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনটি লঞ্চ করার পরে এবার মোটোরোলা তাদের Edge 30 সিরিজের দ্বিতীয় ডিভাইস হিসেবে Motorola Edge 30 ফোনটি শীঘ্রই বাজারে লঞ্চ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এর আগেই, Moto Edge 30 বেস মডেলটি টিডিআরএ (TDRA) ডেটাবেস, ওয়াই-ফাই অ্যালায়েন্স (Wi-Fi Alliance), ইইসি (EEC) এবং গিকবেঞ্চ (Geekbench)- এর মতো বেশ কয়েকটি সার্টিফিকেশন সাইটের অনুমোদন লাভ করছে। আর এখন, এই একই ডিভাইসটিকে থাইল্যান্ডের এনবিটিসি (NBTC)- এর ডেটাবেসে স্পট করা হয়েছে, যা Motorola Edge 30 মডেলটির আসন্ন লঞ্চের দিকেই ইঙ্গিত দিয়েছে।

Motorola Edge 30 পেল NBTC-এর সার্টিফিকেশন

XT2203-1 মডেল নম্বর সহ একটি নতুন মোটোরোলা ডিভাইস থাইল্যান্ডের ন্যাশনাল ব্রডকাস্টিং অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন কমিশন (NBTC) সার্টিফিকেশন ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত হয়েছে। সাইটের তালিকাটি নিশ্চিতও করেছে যে, এই ফোনটি মোটোরোলা এজ ৩০ হিসাবে বাজারে আত্মপ্রকাশ করবে। এই লিস্টিংটি প্রকাশ করেছে, ফোনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি এবং এতে জিএসএম (GSM), ডাব্লিউসিডিএমএ (WCDMA LTE), এবং এন (NR) নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে। এই মডেলটি পূর্বসূরির মতোই ৫জি কানেক্টিভিটি সহ আসবে। এই তথ্যগুলি ছাড়া, এনবিটিসি ডেটাবেস থেকে মোটোরোলা এজ ৩০ সম্পর্কে আর কোনও তথ্য সামনে আসেনি।

মোটোরোলা এজ ৩০- এর সম্ভাব্য স্পেসিফিকেশন (Motorola Edge 30 Expected Specifications)

এর আগেই, আপকামিং মোটোরোলা এজ ৩০ ফোনটিকে গিকবেঞ্চ (Geekbench)-এর সাইটে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে এবং এই সাইটের তালিকা অনুযায়ী, ডিভাইসটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি প্লাস ৫জি চিপসেট দ্বারা চালিত হবে। এটি একটি অক্টা-কোর চিপসেট যার একটি প্রাইম কোর (কর্টেক্স-এ৭৮)- এর ক্লক স্পিড ২.৫ গিগাহার্টজ, তিনটি গোল্ড কর্টেক্স-এ৭৮ কোর ২.২ গিগাহার্টজে চলে এবং চারটি সিলভার কোর (কর্টেক্স-এ৫৫) ১.৮ গিগাহার্টজে রান করে। এছাড়া, এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ অপারেটিং সিস্টেমে চলবে এবং ৮ জিবি র‍্যামের সাথে আসবে।

প্রসঙ্গত, আপকামিং Moto Edge 30 মডেলটি গতবছর অগাস্ট মাসে ভারতে লঞ্চ হওয়া Motorola Edge 20-এর উত্তরসূরি হিসেবে বাজারে আসবে৷ Moto Edge 20 কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮ দ্বারা চালিত এবং এতে ৮ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি ইউএফএস ৩.১ স্টোরেজ রয়েছে৷ এই হ্যান্ডসেটে ১৪৪ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সহ ৬.৭ ইঞ্চির ফুল এইচডি+ POLED স্ক্রিন উপলব্ধ। ক্যামেরার ক্ষেত্রে, Moto Edge 20-এ ১০৮ মেগাপিক্সেলের স্যামসাং আইএসওসেল জিএম২ প্রাইমারি সেন্সর, ১৬ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড ও ম্যাক্রো ক্যামেরা এবং অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাজেশন (OIS) সহ একটি ৮ মেগাপিক্সেলের ৩× টেলিফটো লেন্স উপস্থিত রয়েছে৷ সেলফির জন্য ফোনের সামনে ৩২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা বর্তমান। এছাড়া, এই ফোনে ৩০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সলিউশন সহ ৪,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ইউনিট দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ভারতে Motorola Edge 20 ফোনটি ২৯,৯৯৯ টাকায় লঞ্চ করা হয়েছিল, তবে এখন এটি ২৫,৯৯৯ টাকায় উপলব্ধ রয়েছে। বর্তমানে Motorola Edge 30 ছাড়াও, মোটোরলা তাদের আসন্ন Moto G52 এবং Moto E32 হ্যান্ডসেটগুলিও বাজারে লঞ্চ করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।