Maruti Suzuki-র নতুন কারখানায় তৈরি হবে না বহু প্রত্যাশিত এই গাড়ি, স্পষ্ট জানাল সংস্থা

maruti-suzuki-has-no-plans-to-manufacture-electric-vehicles-in-sonipat

হরিয়ানার সোনিপাত জেলায় কারখানা তৈরির জন্য ৮০০ একর জমি কিনেছে দেশের বৃহত্তম গাড়ি নির্মাতা মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়া লিমিটেড (Maruti Suzuki India Ltd)। যার লাগোয়া আরও ১০০ একর জমিতে সুজুকি মোটরসাইকেল (Suzuki Motorcycle) তাদের টু-হুইলার নির্মাণ কেন্দ্র গড়ে তুলবে। এর জন্য গতকালই হরিয়ানা স্টেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড বা HSIIDC-র হাতে ২,১৩১ কোটি টাকার চেক তুলে দিয়েছে সংস্থাটি। কিন্তু এতদিন পর্যন্ত মারুতির বৃহত্তম হতে চলা ওই কারখানায় বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদন নিয়ে যে জোরদার জল্পনা চলছিল, তাতে জল ঢালল সংস্থা নিজেই।

৮ বছরের মধ্যে এই কারখানায় বার্ষিক উৎপাদন ক্ষমতা ১০ লক্ষে পৌঁছবে। প্রয়োজন ১৮,০০০ কোটি টাকার লগ্নি। যার মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে বছরে ২.৫ লক্ষ গাড়ি তৈরির জন্য সংস্থাটি ১১,০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এই বিনিয়োগের মধ্যে কারখানা তৈরি, জমির দাম, অন্যান্য পরিকাঠামো সহ ভবিষ্যতের কিছু পরিকল্পনা শামিল।

কিন্তু সোনিপতের আসন্ন কারখানায় বৈদ্যুতিক গাড়ির উৎপাদন করা হবে না বলে শেষমেষ বার্তা দিল মারুতি সুজুকি। ফলে গ্রাহকরা সংস্থার বৈদ্যুতিক গাড়ির গণ উৎপাদন শুরু ও সাশ্রয়ী মূল্যে সেগুলির বাজারে আসা নিয়ে যে স্বপ্ন দেখেছিল, তা কার্যত ভঙ্গ হল। তবে ২০২৫-এর মধ্যে বাজারে বৈদ্যুতিক গাড়ি আনার কথা গত মাসে নিশ্চিত করেছিলেন সংস্থার ভারতীয় শাখার সিইও হিসাশি টাকিউচি।

সোনিপতের কারখানায় ২০২৫ থেকেই গাড়ির উৎপাদন চালু হবে। ২০২৬ সাল থেকে দ্বিতীয় পর্যায়ে উৎপাদন বাড়ানো হতে পারে। দেশের এবং বিদেশের বাজারে গাড়ির চাহিদা পূরণ করতে এই কারখানা তৈরি করেছে মারুতি। এই প্রসঙ্গে সংস্থার চেয়ারম্যান আরসি ভার্গব বলেন, “সংস্থা যখন বুঝবে যে বৈদ্যুতিক গাড়ির আরও বেশি মাত্রায় উৎপাদনের প্রয়োজন, যা গুজরাতের কারখানায় সামাল দেওয়া যাচ্ছে না। কেবলমাত্র তখনই  মানেসার, গুরুগ্রাম, সোনিপত অথবা অন্যান্য বিকল্প নির্মাণ কেন্দ্রের কথা ভাবা হবে।”

ভার্গব স্পষ্ট জানিয়ে দেন, “ সোনিপতের কারখানায় ইলেকট্রিক গাড়ি তৈরির পরিকল্পনা নেই।” প্রসঙ্গত, গত মার্চ মাসে সংস্থার অভিভাবক সুজুকি মোটর কর্পোরেশন তাদের গুজরাতের কারখানায় বৈদ্যুতিক গাড়ি ও তার  ব্যাটারি তৈরির জন্য ১০,০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের ঘোষণা করেছে। তাই আপাতত সেখানেই বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণ করবে মারুতি সুজুকি।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।