অত্যাধিক গরমে ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের প্রবণতা বাড়ছে, পেট্রল পাম্প মালিকদের মুখে হাসি

heat-forces-people-to-use-own-cars-petrol-sales-increases

পেট্রোপণ্যের দামে ঝাঁঝের কারণে নাজেহাল আমজনতা। যার জন্য পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে কাঁচা আনাজ থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য। ফলে মধ্যবিত্তের ‘নুন আনতে পান্তা ফুরানোর’ দশা যেন আর কাটছেই না। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে পেট্রোল-ডিজেলের বিক্রি। কথাটা রসিকতা বলে মনে হতে পারে, কিন্তু এটাই সত্যি! চলতি মাসে জ্বালানি তেলের বিক্রি যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, তা গত দু’বছরে দেখা যায়নি।

আসলে এই চড়া দাবদাহের থেকে বাঁচতে বহু মানুষ যাতায়াতের জন্য ব্যক্তিগত গাড়িকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন। আবার মে মাসের অর্থনীতিতে ঊর্ধ্বগতি, তাড়াতাড়ি ফসল কাটা এবং বিদ্যুতের ঘাটতির জন্য বৃদ্ধি পেয়েছে ইলেকট্রিক জেনারেটরের ব্যবহার। ফলে ডিজেলের চাহিদা ব্যাপকভাবে বাড়তে দেখা গেছে। তিনটি রাজ্যের রাষ্ট্রায়ত্ত তেল বিক্রেতার পরিসংখ্যান বলছে, বাজারে তেলের চাহিদা বেড়েছে ৯০%। যেখানে ২০২০ ও ২০২১-এর এই সময়ের তুলনায় চলতি মাসে পেট্রোলের বিক্রি যথাক্রমে ১২২% ও ৫৯.৭% বাড়তে দেখা গেছে।

তবে প্রাক অতিমারি সময়ে অর্থাৎ ২০১৯-এ পেট্রোলের চাহিদা মে’এর প্রথমার্ধের তুলনায় ছিল ১৬.৩% বেশি। আবার ২০২০ ও ২০২১-এর চলতি সময়ের তুলনায় ২০২২-এ ডিজেলের চাহিদা যথাক্রমে ৫৭.৬% ও ৩৭.৮% বৃদ্ধির খবর সামনে এসেছে। অন্যদিকে ২০১৯-এর এই সময়ের তুলনায় চলতি মাসে ডিজেলের বিক্রি কমেছে ১.৫ শতাংশ।

এদিকে জেট ফুয়েলের বিক্রি ২০২০-র মে মাসের প্রথম পনেরো দিনের তুলনায় এবারে ৪৯২.৪% বেড়েছে। কারণ সে সময় লকডাউন চলার জন্য দেশের আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া বিমান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছিল। আবার আগের বছরের মে মাসের তুলনায় এ বছরের এই সময়ে দেশে ৮৩.৭% বেশি জেট ফুয়েলের বিক্রি হয়েছে। যদিও ২০১৯-এর ওই সময়ের চেয়ে এবারের বিক্রি ১৮.৭% কমেছে।

আশ্চর্যজনকভাবে, রান্নার গ্যাসের (LPG) ব্যবহার ২০২২-এ অনেকটাই কমেছে। পরপর মূল্যবৃদ্ধি হতে পারে এর পেছনের একটি কারণ। ২০২০ ও ২০২১-এর মে মাসের প্রথমার্ধের তুলনায় ২০২২-এর মে’তে রান্নার গ্যাসের চাহিদা যথাক্রমে ১১.৯% ও ৫.৪% সঙ্কুচিত হয়েছে। তবে ২০১৯-এর চাইতে এবারের চাহিদা ছিল বেশি।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।