৬০০০ টাকার কমে ফোন খুঁজছেন? ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারির এই মোবাইল আপনার জন্য সেরা বিকল্প হবে

জিওনি ম্যাক্স এর ২ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ মডেলের ভারতে দাম ৫,৯৯৯ টাকা। তবে বর্তমানে, ফ্লিপকার্ট অ্যাক্সিস ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড দ্বারা পেমেন্ট করলে মিলবে ৫% ক্যাশব্যাক

বছর শেষে একটানা উৎসব পালনের পর আপনার পকেট এখন নিশ্চই গড়ের মাঠ। তবে, তাতে কিন্তু আপনার পছন্দের ফোন কেনা আটকাচ্ছে না। কারণ, Flipkart আপনার জন্য নিয়ে এসেছে সস্তায় পছন্দসই ফোন পকেটস্থ করার দারুণ সুযোগ। ফলে এখন ৬,০০০ টাকা বাজেটের মধ্যে দুর্দান্ত ফিচারের ৪জি ফোন কিনতে চাইলে Gionee Max -কে বেছে নিতে পারেন। ফোনটি এই মুহুর্তে দারুণ অফারের সাথে কেনার সুযোগ রয়েছে। জানিয়ে রাখি, এই সেলের মেয়াদ কিন্তু আজই শেষ। তাই তড়িঘড়ি আসুন ফোনটির দাম, অফার ও স্পেসিফিকেশনগুলি জেনে নেওয়া যাক।

Gionee Max দাম ও সেল অফার

জিওনি ম্যাক্স এর ২ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ মডেলের ভারতে দাম ৫,৯৯৯ টাকা। তবে বর্তমানে, ফ্লিপকার্ট অ্যাক্সিস ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড দ্বারা পেমেন্ট করলে মিলবে ৫% ক্যাশব্যাক। পাশাপাশি ইএমআই সুবিধা নিয়েও আপনি ফোনটি কিনে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে মাসিক ২০৬ টাকা করে পরিশোধ করতে হবে। আবার ফোনটি কেনার সময় পুরোনো ফোন বদল করলে পাওয়া যাবে ৫,৪৫০ টাকা পর্যন্ত এক্সচেঞ্জ ভ্যালু। উল্লেখ্য, জিওনি ম্যাক্স হ্যান্ডসেটটি রেড, ব্ল্যাক, রয়াল ব্লু, এই তিনটি কালার অপশনসহ পাওয়া যাবে।

Gionee Max স্পেসিফিকেশন

চমৎকার স্লিক এবং কার্ভড ডিজাইনের জিওনি ম্যাক্স ফোনে আছে ৬.১ ইঞ্চির এইচডি প্লাস ফুল ভিউ ডিউড্রপ (১৫৬০ x ৭২০ পিক্সেল ) ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লের ডিজাইন ওয়াটারড্রপ নচ এবং এর উপরে ২.৫ডি কার্ভাড গ্লাস স্ক্রিন প্রটেকশন বর্তমান যা ফোনটিকে সুরক্ষা প্রদান করে। সুরক্ষার জন্য ফেস আনলক ফিচারটিও পাওয়া যাবে এই ফোনে। ফার্স্ট পারফরম্যান্সের জন্য ডুয়েল সিমের এই ফোনে দেওয়া হয়েছে ১.৬ গিগাহার্টজ ক্লক স্পিডের স্প্রেডট্রাম ৯৮৬৩ অক্টা কোর প্রসেসর। ফোনটি ২ জিবি র‌্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ ক্যাপাসিটি সহ এসেছে। যদিও, মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড ১১ অপারেটিং সিস্টেমে চালিত জিওনির এই স্বল্প বাজেটের ফোনটিতে পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য দেওয়া হয়েছে একটি ৫,০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি।

Gionee Max ফোনটির ক্যামেরার কথা বললে, ফোনটির রিয়ার প্যানেলে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ উপস্থিত। যার মধ্যে রয়েছে একটি ১৩ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা এবং একটি ডিজিটাল ক্যামেরা। রিয়ার এলইডি ফ্ল্যাশ যুক্ত এই ক্যামেরাগুলিতে এএফ ডুয়াল ক্যামেরা বোকে মোড, নাইট মোড, বিউটি মোড, স্লো মোশন ভিডিও ইত্যাদি সাপোর্ট করে। আবার, ভিডিও কলিং ও সেলফির জন্য এই ফোনে দেখা যাবে একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরাও।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন