লোকসানে জর্জরিত Ford ভারতে গাড়ি তৈরি বন্ধ করল, অথৈ জলে কর্মী ও ডিলাররা

Ford দেশের গাড়ি তৈরি করা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সানন্দে কারখানার ঝাঁপ পুরোপুরি বন্ধ করবে ফোর্ড

এর আগে ভারতে গাড়ি তৈরি বন্ধ করেছিল আমেরিকার দুই সংস্থা জেনারেল মোটর্স (General Motors) ও হার্লে ডেভিডসন (Harley Davidson)৷ এবার তাদের পথেই হাঁটল আমেরিকার আরেক বহুজাগতিক গাড়ি সংস্থা ফোর্ড (Ford)৷ বিগত ১০ বছরে ১৫,০০০ হাজার কোটি টাকার লোকসানের মুখ দেখেছে ফোর্ড৷ ভারতের বাজারে কাঙ্খিত জায়গায় পৌঁছতে পারেনি। চাহিদা আশানুরূপ নয়৷ যার ফলে দেশের গাড়ি তৈরি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

বর্তমানে সানন্দ ও চেন্নাইয়ে  কারখানা রয়েছে ফোর্ডের। চেন্নাইয়ের কারখানায় অন্য দেশে ফোর্ডের গাড়ি এবং ইঞ্জিন উৎপাদন সাময়িক ভাবে চালু থাকবে। কিন্তু সানন্দে কারখানার ঝাঁপ পুরোপুরি বন্ধ করবে ফোর্ড।

কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এ বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিক থেকে সানন্দের গাড়ি কারখানা ও আগামী আগামী বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিক থেকে চেন্নাইয়ের কারখানায় ইঞ্জিন ও গাড়ি উৎপাদন বন্ধ করা হবে। ফোর্ডের দাবি, সব রকম পরিকল্পনা নিয়েও প্রতিষ্ঠানকে লাভজনক করা যায়নি। তাই ব্যবসা ঢেলে সাজানোর পথে বাধ্য হচ্ছে তারা।

গাড়ি তৈরি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত জানার পর স্বাভাবিকভাবেই মাথায় হাত ফোর্ডের ৪,০০০ কর্মীর। তবে সেই ধাক্কা যাতে নূন্যতম রাখা যায়, তার জন্য চেন্নাই ও সানন্দে সমস্ত কর্মী, ইউনিয়ন, সরবরাহকারী, ডিলার, এবং প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ফোর্ড। কর্মীদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ফোর্ড। তবে যারা পরোক্ষভাবে ফোর্ডের সঙ্গে জড়িত, তাদের নিয়ে চিন্তায় ডিলারদের সংগঠন ফাডা। তারা জানাচ্ছে, ফোর্ডের ১৭০ জন ডিলারের অধীনে কাজ করে প্রায় ৪০ হাজার জন, এখন কাজ হারানোর মুখে তাঁরা।

এছাড়া যাঁরা ফোর্ডের গাড়ি চালান, কোম্পানির এই সিদ্ধান্তে তাঁরাও দুশ্চিন্তায়। ফোর্ডের অবশ্য আশ্বাস, ক্রেতাদের যন্ত্রাংশের যোগান ও রক্ষণাবেক্ষণে সমস্যা হবে না। উল্লেখ্য, ফোর্ড গাড়ি তৈরি বন্ধ করছে ঠিকই। তবে ভারতে চিরকালের মতো গাড়ির ব্যবসায় তালা ঝোলাচ্ছে না তারা। এরপর মূলত বৈদ্যুতিক, হাইব্রিড, ও অন্যান্য দামি গাড়ি ভারতে আমদানি করবে ফোর্ড।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন