ছুটবে ২৫ কিমি প্রতি ঘন্টা গতিতে, আসছে বৈদ্যুতিক বাইক Emotorad T Rex

emotorad-to-launch-t-rex-electric-scooter-in-india

ভারতে অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় মানুষদের জন্য পুনে ভিত্তিক বৈদ্যুতিন যানবাহন নির্মাতা EMotorad (EM) শীঘ্রই T-Rex নামে একটি e-MTB (Electric Mountain Bike) লঞ্চ করতে চলছে। সংবাদমাধ্যমে দেওয়া একটি বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি বলেছে, এই ই-বাইক শক্ত ভূপৃষ্ঠে চালানোর জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। T-Rex  আপনার অভিযানে সঙ্গী হতে পারে। T-Rex ই-বাইকে রয়েছে হাই-টেক এন্টারপ্রাইজ গ্রেডের ৩৬ ভোল্ট ৭.৮ অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। যা ১০০ শতাংশ চার্জ হতে চার ঘন্টা মতন সময় নেয়। অবশ্য রেগুলার সকেটের মাধ্যমেও বাইকটিকে যে কোন জায়গায়, যে কোন সময় চার্জ দেওয়া যাবে।

EMotorad দাবি করেছে, T-Rex ই-বাইকের পেডাল অ্যাসিস্ট রেঞ্জ ৬০ কিমি এবং থ্রটল রেঞ্জ ৩৫-৪০ কিমি। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ হবে ২৫ কিমি/ঘন্টা। বাইকে থাকবে ডুয়াল ডিস্ক ব্রেক এবং এর ওজনও খুব বেশী নয়, মাত্র ২৩.৮ কেজি। এতে ২৫০ ওয়াটের হাব মাউন্টেড মোটর রয়েছে। এছাড়া এই ই-বাইকে এলইডি হেডলাইট ও টেইললাইট আছে। এটি অ্যালুমিনিয়াম রিম সহ CST টায়ারে চলবে।

‌তদুপরি, T-Rex ই-বাইকে একটি এলসিডি 866 ডিসপ্লে থাকবে যা বাইক ও ব্যবহারকারীর যাত্রা সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য দেখাবে। এর ডিসপ্লে রিমোট বিভিন্ন ক্রিয়াকলাপ সম্পাদন করতে এবং স্ক্রিনে বিভিন্ন ইনফরমেশন সেটের মধ্যে টগল করতে সহায়তা করবে। রাইডার এই স্ক্রিনে ব্যাটারি চার্জ ইন্ডিকেটর, ডিসট্যান্স ইউনিট, পেডাল অ্যাসিস্ট লেভেল সহ আরও অনেক কিছু দেখতে পারবেন।

জানুয়ারির মাঝেই প্রিমিয়াম ক্যাটেগরীর ই-বাইক T-Rex লঞ্চ হবে। এর দাম হতে পারে ৪৫,০০০ টাকার কাছাকাছি। এতে ৬০৬১ অ্যালুমিনিয়াম ফ্রেম থাকবে এবং রাইডারের যাত্রা আরও আরামপদায়ক করার জন্য এটি অ্যাডজাস্টেবল ফ্রন্ট সাসপেনশনের সাথে আসবে।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

Shuvro primarily writes about smartphone and automobile industry. He is an assistant editor for techgup. Shuvro has a bachelor degree in English literature. His interest also includes cosmopolitan affairs, scientific discoveries, and quizzing.