টুইটার বিক্রির পর লঞ্চ হল Elon Buys Twitter ক্রিপ্টোকারেন্সি, রাতারাতি দাম বাড়লো ১০৫০০ শতাংশ

Twitter কেনার পরই ক্রিপ্টো দুনিয়ায় ধামাকা, ১০,৫০০% পর্যন্ত দাম বাড়ল ইলন মাস্কের নামধারী ক্রিপ্টোকারেন্সির

elon-musk-buys-twitter-crypto-token-value-increased-thousand-percentage-after-twitter-deal

সাম্প্রতিককালে টেক দুনিয়ার যেদিকেই তাকানো যাক না কেন, সর্বত্রই খবরের শিরোনামে রয়েছেন Tesla (টেসলা)-র অধিকর্তা ইলন মাস্ক (Elon Musk)। আর এর মূল কারণ হল, সম্প্রতি ৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটার (Twitter) কিনে নিয়েছেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী এই ব্যক্তি। আর টুইটার কেনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই ক্রিপ্টোকারেন্সির দুনিয়ায় এক ধামাকাদার বিস্ফোরণ ঘটেছে। সেটা কী? আসুন বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

একথা সকলেরই জানা যে, ক্রিপ্টোকারেন্সির দুনিয়ায় ইলন মাস্ক খুবই পরিচিত এক নাম। বিভিন্ন ধরনের চটকদার ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেটে প্রোমোট করে ইতিমধ্যেই ক্রিপ্টো বাজারে এক উল্লেখযোগ্য তথা নজিরবিহীন সাফল্য অর্জন করেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনীতম এই ব্যক্তি। তবে এখন সম্প্রতি টুইটার কেনার খবর সামনে আসতেই অনেকেই টেসলার কর্ণধারের নাম দিয়ে বাজারে বেশ কিছু ক্রিপ্টোকারেন্সি চালু করেছে। যেহেতু সাম্প্রতিককালে ক্রিপ্টোর মোহে মানুষ বুঁদ হয়ে রয়েছেন, তাই বাজারে আসা মাত্রই ব্যাপক হারে সেগুলিকে তারা কিনে ফেলেছেন। ফলস্বরূপ একলাফে ক্রিপ্টোগুলির দাম চড়চড় করে বেড়ে এক বিশাল উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছে। এই প্রতিবেদনে আমরা এমনই কয়েকটি ক্রিপ্টোকারেন্সির কথা আপনাদেরকে জানাতে চলেছি।

CoinMarketCap-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, এই তালিকার প্রথম ক্রিপ্টোটি হল Elon Buys Twitter বা EBT token। টেসলার কর্ণধারের টুইটার কেনার খবর প্রকাশ্যে আসার পর EBT token-এর দাম গত ২৪ ঘণ্টায় ১০,৫০০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে, যা এককথায় অবিশ্বাস্য! বর্তমানে মার্কেটে এই ডিজিটাল মুদ্রাটির ৪০৬২ শতাংশ হারে লেনদেন হচ্ছে। অন্যদিকে, Doge Elon Mars ক্রিপ্টোকারেন্সির দামও একলাফে ২০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে, আর এখন মার্কেটে এটির ১২.৬৪ শতাংশ হারে লেনদেন চলছে।

এখানেই শেষ নয়, এসবের পাশাপাশি Elon GOAT, Mime Quine Floki Musk, এবং Elonhype-এর দামও একলাফে অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এছাড়া, ইলন মাস্কের প্রিয় কারেন্সি Dogecoin-এর দামও ৩০ শতাংশ বেড়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। আর চলতি সময়ে উল্লিখিত ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির এই আকস্মিক বৃদ্ধিপ্রাপ্ত দাম দেখে অনেকেই হয়তো এগুলি কেনার জন্য উৎসাহিত হয়ে উঠবেন। সেক্ষেত্রে আপনাদেরকে মনে করিয়ে দিই যে, এই ধরনের ডিজিটাল মুদ্রায় অর্থ বিনিয়োগের আগে সর্বদা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া উচিত। ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে সবকিছু জেনে নিয়ে তবেই এই জাতীয় ডিজিটাল মুদ্রায় অর্থ বিনিয়োগ করুন, নচেৎ আপনার কষ্টার্জিত টাকা অকালে গচ্ছা যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, ক্রিপ্টো দুনিয়ায় যে এরকম ঘটনা এই প্রথম ঘটল তা কিন্তু নয়। এর আগে গত বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে নেটফ্লিক্সের ব্লকবাস্টার ওয়েব সিরিজ স্কুইড গেমের নাম দিয়ে স্কুইড গেম ক্রিপ্টো নামে একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি লঞ্চ করা হয়েছিল। এই ডিজিটাল মুদ্রাটি তখন এতটাই জনপ্রিয় হয়েছিল যে মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই এর দাম ৩০,০০০ শতাংশেরও বেশি বেড়ে ২,৮৫৬.৬৫ ডলারে পৌঁছেছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এই উচ্চতায় পৌঁছানোর মাত্র সাত সেকেন্ডের মধ্যেই এটির দাম ৯৯.৯৯% হ্রাস পায়, যার ফলে ক্রিপ্টো মুদ্রাটির মূল্য মাত্র ০.০০০৭ ডলারে নেমে আসে! খুব স্বাভাবিকভাবেই এর ফলস্বরূপ কোটি কোটি বিনিয়োগকারী মারাত্মক রকম লোকসানের সম্মুখীন হন। স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে যে, প্রতিটা জিনিসেরই ভালো এবং খারাপ দুটি দিকই রয়েছে। এখন এই ধরনের ডিজিটাল কারেন্সিতে আপনি আপনার কষ্টার্জিত টাকা বিনিয়োগ করবেন কি না, সে সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণভাবে আপনার।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।