Jio-র সাহায্যে ঘরে বসেই করুন যত খুশি টাকা রোজগার! জেনে নিন কীভাবে সম্ভব

করোনা মহামারীর আবির্ভাবের পর থেকে দেশের অর্থনীতি সম্পূর্ণভাবে বিপর্যস্ত হয়ে যাওয়ায় চাকরির বাজার এখন খুবই মন্দা। এমনিতেই আমাদের দেশে বেকারত্বের সমস্যা চিরকালীন, উপরন্তু করোনা এসে যাওয়ায় দেশে বেকারের সংখ্যা আরও বহুগুণে বেড়ে গিয়েছে। কিন্তু ঘরে বসে থাকলে তো আর পেট চলবে না, তাই চাকরি না পেলেও ঘরে বসেই টুকটাক কাজ করে দিন গুজরানের পথ খুঁজছেন অসংখ্য মানুষ। এবং এই কাজে তাদেরকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় টেলিকম কোম্পানি Reliance Jio (রিলায়েন্স জিও)। আর তা কীভাবে? আসুন বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

মুকেশ আম্বানির মালিকানাধীন টেলিকম সংস্থার এই বিশেষ সার্ভিসের নাম JioPOS Lite (জিওপজ লাইট)। এটি আসলে একটি অ্যাপ, যার নাম অনেকে শুনে থাকলেও এটির কার্যকারিতা বা কীভাবে ব্যবহার করতে হয়, সেটা অনেকেই জানেন না। ২০২০ সালে করোনার আবির্ভাবের পর লকডাউন শুরু হতেই এই অ্যাপটি লঞ্চ করেছিল জিও। এই অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে রিচার্জ করে ঘরে বসেই যত খুশি টাকা আয় করতে পারবেন ইউজাররা। আর এই কাজের জন্য যেহেতু আলাদা করে খুব একটা বেশি সময় বের করতে হয় না, তাই চাকুরিজীবীরাও আয়ের দ্বিতীয় উৎস হিসেবে এই অ্যাপটি ব্যবহার করার কথা ভেবে দেখতে পারেন। আসলে ইউজাররা যত বেশি রিচার্জ করবেন, তত বেশি পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাহলে চলুন, কীভাবে JioPOS Lite অ্যাপের সহায়তায় সহজেই টাকা রোজগার করা যাবে, তা বিশদে জেনে নিই।

কীভাবে কাজ করে JioPOS Lite অ্যাপ?

জিওপজ লাইট অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোর (Google Play Store)-এ উপলব্ধ। এটির মাধ্যমে ইউজাররা জিও পার্টনার হয়ে নিজের মোবাইল এবং সেইসাথে পরিবারের সদস্য, বন্ধুবান্ধব সহ যে কারোর ফোনেই প্রিপেইড রিচার্জ করে দিতে পারবেন। আর সবচেয়ে বড় কথা হল, এই অ্যাপের মাধ্যমে কারোর ফোন রিচার্জ করিয়ে দিলেই মিলবে তৎক্ষণাৎ কমিশন! আজ্ঞে হ্যাঁ, জিওপজ লাইট অ্যাপ সমস্ত পার্টনারদের রিচার্জ করার জন্য ৪.১৬ শতাংশ কমিশন দিচ্ছে। তবে এর জন্য সবার প্রথমে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়াটি সেরে ফেলতে হবে, যেটি নিতান্তই খুব সহজ একটি কাজ এবং এর জন্য কোনো ধরনের ফিজিক্যাল ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হয় না।

উল্লেখ্য যে, জিওপজ লাইট অ্যাপে জিও পার্টনার হিসেবে নিজেকে রেজিস্টার করতে হলে আপনার একটি জিও কানেকশন লাগবে। গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে আপনাকে নিজের যাবতীয় ব্যক্তিগত ডিটেইলস যথাযথভাবে এন্টার করে কয়েকটি সহজ স্টেপের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করে ফেলতে হবে। এরপরে এই অ্যাপটি আপনাকে আপনার ওয়ালেটে টাকা লোড করতে বলবে, কারণ এখান থেকেই আপনি যে পরিমাণ টাকা রিচার্জ করবেন, তা কেটে নেওয়া হবে। আর এর পরবর্তী ধাপে যখনই আপনি কোনো নম্বরে রিচার্জ করবেন, তখনই আপনি ৪.১৬ শতাংশ কমিশন পাবেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি ১০০ টাকা রিচার্জ করেন, তবে আপনি ৪.১৬৬ টাকা আপনার জিওপজ ওয়ালেটে ফেরত পাবেন। তাহলে এবার চলুন, কীভাবে জিও পার্টনার হিসেবে নিজেকে জিওপজ লাইট অ্যাপে রেজিস্টার করে সহজেই অন্যের নম্বর রিচার্জ করে টাকা রোজগার করা যাবে, তার সম্পূর্ণ পদ্ধতিটি ধাপে ধাপে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

কীভাবে JioPOS Lite অ্যাপে রেজিস্টার করে মোবাইল রিচার্জ করার মাধ্যমে টাকা রোজগার করবেন?

১. প্রথমে আপনার অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে জিওপজ লাইট অ্যাপটি ডাউনলোড করুন।

২. এরপর অ্যাপটি ওপেন করলে সেটিকে ব্যবহার করার জন্য আপনার কাছে বিশেষ কিছু পারমিশন চাওয়া হবে, যার মধ্যে রয়েছে আপনার কন্ট্যাক্টস, লোকেশন, ফাইল ইত্যাদি। এইসবের অনুমতি দেওয়ার জন্য ‘অ্যালাও অল’ (Allow All)-এ ক্লিক করুন।

৩. এবার ‘সাইন আপ’ (Sign up)-এ ক্লিক করুন।

৪. আপনার ইমেইল এবং জিও মোবাইল নম্বর এন্টার করুন।

৫. এবার ‘জেনারেট ওটিপি’ (Generate OTP)-তে ক্লিক করুন।

৬. আপনার প্রাপ্ত ওটিপিটি এন্টার করে ‘ভ্যালিডেট ওটিপি’ (Validate OTP)-তে ক্লিক করুন।

৭. আপনার লোকেশন চুজ করে ‘ডান’ (Done)-এ ক্লিক করুন।

৮. এরপর আরও একবার ‘ডান’-এ ক্লিক করুন।

৯. এখন, সাইন-ইন প্রক্রিয়া শুরু করুন এবং আপনার ফোন নম্বরটি এন্টার করুন।

১০. তারপরে আপনার পছন্দানুযায়ী ৪ ডিজিটের এম-পিন (MPin) এন্টার করুন।

১১. এরপরে ‘সেটআপ’ (Setup)-এ ট্যাপ করুন।

১২. রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে আপনি যখন জিওপজ লাইট অ্যাপটিতে প্রবেশ করবেন, তখন ‘রিচার্জ’ (Recharge), ‘মাই আর্নিংস’ (My earnings), ‘লোড মানি’ (Load Money) এবং ‘পাসবুক’ (Passbook)-এর মতো কয়েকটি অপশন দেখা যাবে।

১৩. ‘লোড মানি’ অপশনটি ব্যবহার করে আপনি আপনার ইচ্ছেমতো যত খুশি টাকা আপনার অ্যাকাউন্টে লোড করতে পারবেন।

১৪. এরপরে ‘রিচার্জ’-এ ক্লিক করে আপনি যে-কোনো নম্বরে রিচার্জ করতে পারবেন। এতে আপনার রিচার্জের সমপরিমাণ অ্যামাউন্টটি আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে এবং আপনি আপনার প্রাপ্য কমিশন পেয়ে যাবেন।

উল্লেখ্য যে, আপনি আপনার সমস্ত রোজগারের তালিকা My earnings অপশনে ক্লিক করে দেখতে পাবেন। আর বিগত ২০ দিনের কমিশনের হিসাব রাখার জন্য থাকছে বিশেষ Passbook অপশন। তাই ঘরে বসেই সহজে কিছু টাকা রোজগার করতে এই পন্থাটি অবলম্বন করার কথা ভেবে দেখতে পারেন কিন্তু!

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।