দেশীয় 5G ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে তৎপর কেন্দ্র, বাড়ানো হল PLI স্কিমের সময়সীমা

ডিজাইন-নির্ভর উৎপাদনকারীদের বাড়তি সুবিধা দিতে PLI স্কিমের নির্দেশিকায় বদল নিয়ে এল DoT

গতবছর প্রকাশ্যে আসা পিএলআই (PLI) বা প্রোডাকশন লিংকড ইনসেন্টিভ স্কিমের সময়সীমা বাড়িয়ে এবার তারই অাওতায় ডিজাইন-নির্ভর উৎপাদনকারীদের বিশেষ সুবিধা দিতে সচেষ্ট কেন্দ্রীয় টেলিযোগাযোগ দপ্তর ডট (DoT)। সোমবার দপ্তরের তরফ থেকে জারি হওয়া এক বিবৃতিতে একথা ঘোষণা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে লগ্নিতে আগ্রহী কোম্পানিগুলিকে মোটা অঙ্কের ভর্তুকি দেওয়া হবে বলে DoT জানিয়েছে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, কেন্দ্রীয় DoT -এর এই পদক্ষেপ সারা দেশজুড়ে 5G ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অত্যন্ত ইতিবাচক ভূমিকা নেবে।

ডিজাইন-নির্ভর উৎপাদনকারীদের বাড়তি সুবিধা দিতে PLI স্কিমের নির্দেশিকায় বদল নিয়ে এল DoT

মনে করিয়ে দিই যে গতবছর অর্থাৎ ২০২১ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি ডট (DoT) প্রথম পিএলআই স্কিমের অধীনে ডিজাইন-নির্ভর উৎপাদনের জন্য ভর্তুকি প্রদানের সরকারি সুবিধার কথা ঘোষণা করে। এবার স্কিমের শর্তে কিছু জরুরি বদল বা সংস্কার এনে তা ১লা এপ্রিল, ২০২২ থেকে কার্যকর করা হল। বলা বাহুল্য, বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সাথে দফায় দফায় আলোচনার পর কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে পিএলআই স্কিমের নির্দেশিকায় বদল আনা হয়েছে।

স্কিমের শর্ত পূরণ করলে অন্যদের তুলনায় অতিরিক্ত ভর্তুকি পাবেন ডিজাইন-ভিত্তিক উৎপাদনকারীরা

সরকারি পিএলআই (PLI) স্কিমের অধীনে ভর্তুকি লাভের জন্য টেলিকম ইক্যুইপমেন্ট প্রস্তুতকারকদের পণ্য উৎপাদনে অন্তত ৫০ শতাংশ ভারতীয় উপকরণ ব্যবহার করতে হবে। এর পরিবর্তে স্থানীয় উৎপাদনকারীরা আলোচ্য স্কিমের অধীনে ৪-৭ শতাংশ হারে ভর্তুকি পেতে পারেন। কিন্তু ডিজাইন-নির্ভর উৎপাদনকারী হলে স্কিম অনুযায়ী আরো ১ শতাংশ অতিরিক্ত ভর্তুকি লাভের সুযোগ থাকছে।

ভর্তুকির জন্য আবেদন করার উপায়

প্রসঙ্গত জানিয়ে রাখা দরকার, খুব শীঘ্রই স্থানীয় উৎপাদনকারীরা পিএলআই (PLI) স্কিমের অাওতায় উল্লিখিত ভর্তুকির জন্য আবেদন করতে পারবেন। এজন্য ২১শে জুন থেকেই একটি উইন্ডো পোর্টাল ওপেন করা হয়েছে। পোর্টালটির মাধ্যমে আগামী ২০শে জুলাই সময়সীমা পর্যন্ত আলোচ্য সুবিধা চেয়ে আবেদন করা যাবে। এক্ষেত্রে ইনসেন্টিভ অর্থাৎ ভর্তুকির পরিমাণ শুরু হচ্ছে ন্যূনতম ৪,০০০ কোটি টাকা থেকে।

উল্লেখ্য, গতবছর ফেব্রুয়ারিতে পিএলআই স্কিম প্রকাশ্যে আনার পর টেলিযোগাযোগ দপ্তর ডট ১৪ই অক্টোবর Nokia, Foxconn সহ মোট ৩১টি কোম্পানির আবেদন মঞ্জুর করে। ২০২৫-২৬ পর্যন্ত এই সব সংস্থাগুলি ভারতে প্রায় ৩,৩৪৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে।

পরিশেষে যে কথা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তা হল আলোচ্য ইনসেন্টিভ স্কিমের অধীনে ভর্তুকি পেতে হলে আগ্রহী কোম্পানিগুলির বৈশ্বিক আয়ের শর্ত পূরণ একটি অত্যাবশ্যক দিক। স্কিমের শর্ত পূরণের পর তারা তাদের এক বা একাধিক পণ্যের জন্য বিনিয়োগ করতে পারেন।

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।