বাজেট যদি থাকে ২০ হাজার টাকা, Redmi, OnePlus, Samsung-র সেরা ফোনগুলি দেখে নিন

২০,০০০ টাকার নিচে উপলব্ধ স্মার্টফোনের তালিকা দেখে নিন

ভারতের ইলেক্ট্রনিক্স মার্কেটে, বাজেট থেকে প্রিমিয়াম প্রত্যেকটি সেগমেন্টের অধীনেই স্বতন্ত্র ফিচারের একাধিক স্মার্টফোন বিদ্যমান আছে। এক্ষেত্রে, আপনারা যারা মিড রেঞ্জের মধ্যে একটি নয়া স্মার্টফোন কিনতে আগ্রহী, তাদের আজ আমরা এমন ৩টি সেরা স্মার্টফোনের খোঁজ দেব, যেগুলির দাম ২০,০০০ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। এই তালিকায় – OnePlus, Samsung ও Redmi ব্র্যান্ডের ৩টি লেটেস্ট 4G এবং 5G কানেক্টিভিটির হ্যান্ডসেট সামিল থাকছে। উল্লেখিত সংস্থাগুলির প্রত্যেকটি মডেলেই আপনারা, FHD+ ডিসপ্লে প্যানেল, ট্রিপল বা কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এবং ৬,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটি পর্যন্ত ব্যাটারি পেয়ে যাবেন। একইসাথে, ৮ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম ও ১২৮ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজও বিদ্যমান থাকছে ডিভাইস-ত্রয়ীতে। সুতরাং, ফিচারের দিক থেকে কোনো কমতি পাবেন না আপনারা এই ফোনগুলিতে। চলুন ২০,০০০ টাকার নিচে উপলব্ধ ৩টি সেরা স্মার্টফোনের দাম ও ফিচার সম্পর্কে বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

২০,০০০ টাকার নিচে উপলব্ধ স্মার্টফোনের তালিকা

OnePlus Nord CE 2 Lite 5G: ডুয়াল-সিমের (ন্যানো) ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই ২ লাইট ৫জি স্মার্টফোনে কর্নিং গরিলা গ্লাস ভিকটাস প্রটেকশন সহ একটি ৬.৫৯ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪১২ পিক্সেল) ডিসপ্লে রয়েছে। এই ডিসপ্লে ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও , ২০২পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি, ২৪০ হার্টজ টাচ রেসপন্স রেট, ১২০ হার্টজ ডাইনামিক রিফ্রেশ রেট এবং sRGB কালার গ্যামেট সমর্থন করে। এছাড়া হ্যান্ডসেটটি অ্যাড্রেনো ৬১৯ জিপিইউ এবং অক্টা-কোর স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ প্রসেসর সহ এসেছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক অক্সিজেনওএস ১২.১ কাস্টম স্কিনে চলবে। ওয়ানপ্লাসের এই ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল, ৬৪ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল শ্যুটার এবং মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। সেলফি এবং ভিডিও চ্যাটের জন্য এতে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের Sony IMX471 সেন্সর রয়েছে। বায়োমেট্রিক প্রমাণীকরণের জন্য এতে একটি ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর পাওয়া যাবে। ওয়ানপ্লাসের এই লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনে পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যা ৩৩ওয়াট সুপারভোক (SuperVOOC) ওয়্যারড চার্জিং সাপোর্ট করে। এই চার্জিং টেকনোলজি ডিভাইসকে মাত্র ৩০ মিনিটে ৫০% পর্যন্ত চার্জ করার ক্ষমতা রাখে বলে দাবি করা হয়েছে।

দাম : OnePlus Nord CE 2 Lite 5G স্মার্টফোনকে দুটি স্টোরেজ অপশনের সাথে লঞ্চ করা হয়েছিল। যার মধ্যে, ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৯,৯৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। আর ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ অপশনের দাম থাকছে ২১,৯৯৯ টাকা। এটি – ব্ল্যাক ডাস্ক এবং ব্লু টাইড কালার ভ্যারিয়েন্টে এসেছে।

Samsung Galaxy M33 5G: স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩৩ ৫জি ফোনে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫ প্রোটেকশন ও ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সহ একটি ৬.৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪০৮ পিক্সেল) ইনফিনিটি-ভি ডিসপ্লে দেখা যাবে। উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য উক্ত ফোনে ৫এনএম প্রসেসিং নোড ভিত্তিক অক্টা কোর এক্সিনস প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ওয়ান ইউআই ৪.১ (One UI 4.1) কাস্টম স্কিন দ্বারা চালিত। আর বিশেষত্ব হিসাবে, স্যামসাংয়ের ‘র‌্যাম প্লাস’ (RAM Plus) ফিচারের দৌলতে এই ফোনে ১৬ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম বাড়ানো যাবে। তদুপরি, স্যামসাংয়ের এই ৫জি হ্যান্ডসেটের পিছনে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এগুলি হল – ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ১২০-ডিগ্রি ফিল্ড-অফ-ভিউ সহ ৫ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। আবার, পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৩৩ ৫জি ফোনে ২৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৬,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে। সিকিউরিটির জন্য এতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর উপলব্ধ।

দাম : Samsung Galaxy M33 5G ফোনের ৬ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৮,৯৯৯ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আর ৮ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম রাখা হয়েছে ২০,৪৯৯ টাকা। ফোনটি দুটি কালার অপশনের সাথে এসেছে – গ্রীন ও ব্লু।

Xiaomi Redmi Note 11S: ডুয়েল সিমের রেডমি নোট ১১এস ৫জি ফোনে একটি ৬.৪৩ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪০০পিক্সেল) AMOLED ডিসপ্লে রয়েছে। এই ডিসপ্লে, ৪০৯ পিপিআই পিক্সেল ঘনত্ব, ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট, ১৮০ হার্টজ পর্যন্ত টাচ স্যাম্পলিং রেট, ৪,৫০০,০০০:১ কনট্রাস্ট রেশিও, ১,০০০ নিট পিক ব্রাইটনেস অফার করে৷ এছাড়া এই ডিসপ্লে DCI-P3 কালার গ্যামেট, রিডিং মোড ৩.০ এবং সানলাইট ডিসপ্লে ফিচারও সাপোর্ট করে। ফাস্ট পারফরম্যান্সের জন্য এটি মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৮ প্রসেসর সহ এসেছে। ফটোগ্রাফির জন্য আলোচ্য ডিভাইসে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এগুলি হল – ১০৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল ডেথ সেন্সর। সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, রেডমি নোট ১১এস ৫জি ফোনে ৩৩ ওয়াট প্রো ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ক্যাপাসিটির ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। আর নিরাপত্তার জন্য, এতে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর অন্তর্ভুক্ত থাকছে।

দাম : ভারতের বাজারে Redmi Note 11S স্মার্টফোনের তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট উপলব্ধ। সেক্ষেত্রে, এই ফোনের ৬ জিবি র‍্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজ মডেলের বিক্রয় মূল্য ১৬,৪৯৯ টাকা। এছাড়া ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ এবং ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম যথাক্রমে ১৭,৪৯৯ টাকা এবং ১৮,৪৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। এটিকে, স্পেস ব্ল্যাক, হরাইজন ব্লু এবং প্রোল হোয়াইট- এই তিনটি কালার অপশনে বেছে নেওয়া যাবে।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন