দাম ১৬ হাজার টাকার কম, Vivo, iQOO, Realme, Poco, Moto-র‌ বাজেট ফ্রেন্ডলি 5G স্মার্টফোন দেখে নিন

১৬,০০০ টাকার নিচে উপলব্ধ ৫টি সেরা 5G স্মার্টফোনের তালিকা দেখে নিন

৫তম প্রজন্মের ব্রডব্যান্ড সেলুলার নেটওয়ার্ক বা 5G আগমনের সময়কাল যত এগিয়ে আসছে, ততই ক্রেতাদের মধ্যে এই ‘নেক্সট জেনারেশন’ কানেক্টিভিটির হ্যান্ডসেট কেনার আগ্রহ বাড়ছে। আপনিও যদি এই মুহূর্তে একটি 5G স্মার্টফোন কেনার পরিকল্পনা করে থাকেন, তবে আজ আমরা এই প্রতিবেদনে এমন ৫টি সেরা স্মার্টফোনের হদিশ দেব যেগুলিকে ১৬,০০০ টাকারও কমে কিনে নেওয়া যাবে। এই তালিকায় – Vivo T1 5G, Poco M4 Pro 5G, Motorola Moto G51 5G, iQ00 Z6 5G এবং Realme 9 5G স্মার্টফোন সামিল রয়েছে। উল্লেখিত মডেলগুলিতে 5G কানেক্টিভিটির পাশাপাশি একাধিক অ্যাডভান্স ফিচারও থাকছে।

১৬,০০০ টাকার নিচে উপলব্ধ ৫টি সেরা 5G স্মার্টফোনের তালিকা

Vivo T1 5G : ভিভো টি১ ৫জি ফোনে দেখা যাবে একটি ৬.৫৮ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০×২৪০৮ পিক্সেল) IPS LCD ডিসপ্লে, যার রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ এবং টাচ স্যাম্পলিং রেট ২৪০ হার্টজ। উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য এতে স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ ৫জি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। হ্যান্ডসেটটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ফান টাচ ওএস১২ কাস্টম স্কিনে চলে। আবার ফটোগ্রাফির জন্য এতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ থাকবে। এগুলি হল, ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল সেকেন্ডারি সেন্সর এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর। একইভাবে সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য, ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকছে ফোনে। ভিভো টি১ ৫জি ফোনে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে।

দাম : ভিভোর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট অনুসারে, Vivo T1 5G স্মার্টফোনের ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ অপশনের দাম ১৫,৯৯০ টাকা। এটিকে স্টারলাইট ব্ল্যাক ও রেইনবো ফ্যান্টাসি কালারে পাওয়া যাবে।

Motorola Moto G51 5G : ডুয়েল সিমের মোটো জি৫১ ৫জি ফোনে রয়েছে, একটি ৬.৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪০০ পিক্সেল) ম্যাক্স ভিশন ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লে, ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ২০:৯ এসপেক্ট রেশিও সাপোর্ট করে। পারফরম্যান্স ও মাল্টিটাস্কিংয়ের জন্য উক্ত ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে অক্টা কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৮০ প্লাস প্রসেসর। এটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক মাই ইউএক্স কাস্টম স্কিনে রান করবে। ফটোগ্রাফির জন্য মোটোরোলার এই হ্যান্ডসেটে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল, ৫০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা ওয়াইড সেন্সর ও ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শুটার। আবার সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য, ডিসপ্লের উপরিভাগে ১৩ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা উপস্থিত, যার অ্যাপারচার এফ/১.৮। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য উক্ত ডিভাইসে ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে, যার সাথে ২০ ওয়াট র‌্যাপিড চার্জিং সাপোর্ট করে।

দাম : ই-কমার্স সাইট ফ্লিপকার্টে, Motorola Moto G51 5G স্মার্টফোনকে ১২,৯৯৯ টাকায় এনলিস্ট করা হয়েছে। এই দাম হ্যান্ডসেটের ৪ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ যুক্ত একক ভ্যারিয়েন্টের। এটি অ্যাকুয়া ব্লু ও ইন্ডিগো ব্লু কালারে পাওয়া যাবে।

Poco M4 Pro 5G : পোকো এম৪ প্রো ৫জি ফোনে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের একটি ৬.৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০x২৪০০ পিক্সেল) LCD ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এটি মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর সহ এসেছে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক এমআইইউআই ১৩ (MIUI 13) কাস্টম স্কিনে চলে। উক্ত ডিভাইসে অতিরিক্ত ভাবে ৩ জিবি ভার্চুয়াল র‌্যামের সাপোর্ট পাওয়া যাবে। ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, পোকোর এই ফোনে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এগুলি হল, এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল ওয়াইড প্রাইমারি সেন্সর ও ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স। ফোনের সামনে এফ/২.৪৫ অ্যাপারচার সহ ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা উপস্থিত। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য, এই ৫জি ফোনে ৩৩ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। সিকিউরিটি ফিচার হিসাবে, এতে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বর্তমান।

দাম : ই-কমার্স সাইট ফ্লিপকার্টে Poco M4 Pro 5G স্মার্টফোনের ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ অপশনকে ১৫,০৫৯ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। এটিকে – পোকো ইয়ালো, পাওয়ার ব্ল্যাক ও কুল ব্লু কালারে বেছে নেওয়া যাবে।

Realme 9 5G : ডুয়েল-সিমের রিয়েলমি ৯ ৫জি ফোনে একটি ৬.৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১,০৮০x২,৪০০ পিক্সেল) ডিসপ্লে আছে, যা ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট এবং ৬০০ নিট পিক ব্রাইটনেস সাপোর্ট করে। পারফরম্যান্সের জন্য এতে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮১০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক রিয়েলমি ইউআই ২.০ (Realme UI 2.0) কাস্টম স্কিনে রান করে। এই ডিভাইসে ৫ জিবি ভার্চুয়াল র‌্যাম সাপোর্ট পাওয়া যাবে। ফটোগ্রাফির জন্য রিয়েলমি ৯ ৫জি ফোনের ব্যাক প্যানেলে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে। এগুলি হল, ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, একটি অনির্দিষ্ট মনোক্রোম পোর্ট্রেট সেন্সর এবং এফ/২.৪ অ্যাপারচার সহ একটি ম্যাক্রো লেন্স। একই সাথে, ফোনের সামনে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা দেখা যাবে। নিরাপত্তার জন্য এতে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বর্তমান। আর পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য উক্ত ফোনে, ১৮ ওয়াট কুইক চার্জ সাপোর্ট সহ ৫,০০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে।

দাম : রিয়েলমি ৯ ৫জি স্মার্টফোনের ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টকে ১৪,৯৯৯ টাকায় লঞ্চ করা হয়েছিল। ফোনটি – মিটিওর ব্ল্যাক, সানবার্স্ট গোল্ড ও স্টারগেজ হোয়াইট কালার অপশনে এসেছে।

iQOO Z6 5G : আইকো জেড৬ ৫জি ফোনে আছে একটি ৬.৫৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (১০৮০ x ২৪০৮ পিক্সেল) ডিসপ্লে, যা ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পলিং রেট সাপোর্ট করে। এটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ প্রসেসর সহ এসেছে। ফটোগ্রাফির জন্য উক্ত ৫জি ফোনে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ বর্তমান। এগুলি হল – এফ/১.৮ অ্যাপারচার সহ ৫০ মেগাপিক্সেল Samsung ISOCELL JN1 প্রাইমারি সেন্সর, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো শুটার ও ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ লেন্স। তবে ৪ জিবি ভ্যারিয়েন্টে বোকেহ ক্যামেরা পাওয়া যাবে না। যাইহোক, সেলফি ও ভিডিও কলিংয়ের জন্য এতে ১৬ মেগাপিক্সেল Samsung 3P9 ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরা উপস্থিত। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য আইকোর এই হ্যান্ডসেটে ৫,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে, যা ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। সিকিউরিটির জন্য উক্ত ফোনে সাইড-মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর উপলব্ধ।

দাম : ই-কমার্স সাইট অ্যামাজনের লিস্টিং অনুসারে, iQOO Z6 5G স্মার্টফোনের ৪ জিবি র‌্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৪,৯৯৯। এটি, ডায়নামো ব্ল্যাক ও ক্রোমাটিক ব্লু কালারে উপলব্ধ।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন