ফোনের চার্জারে হিডন ক্যামেরা! অত্যন্ত সস্তায় এই চমকপ্রদ ডিভাইস কিনে নজরদারি চালাবেন নাকি?

ausha-spy-camera-phone-charger-avaliable-on-amazon-in-cheap-price-know-specifications

কারোর উপর নজর রাখার জন্য স্পাই বা হিডন বা গোপন ক্যামেরার ব্যবহার দীর্ঘদিন ধরেই হয়ে আসছে। গুপ্তচরবৃত্তি করার জন্য পুরোনো দিনের সিনেমা কিংবা টিভি সিরিয়াল বা হালফিলে ডিজিটাল যুগে ঝাঁ-চকচকে সিনেমায় নানান ধরনের তথা অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন হিডন ক্যামেরা দেখা যায়। আগেকার দিনের সিনেমায় প্রায়শই দেখা যেত যে, কারোর ওয়ালেট কিংবা শার্টের বোতাম বা পেনের মধ্যে লুকিয়ে রাখা রয়েছে গোপন ক্যামেরা। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সব কিছু যখন স্মার্ট হচ্ছে, তখন এই হিডন ক্যামেরাই বা হবে না কেন? সেক্ষেত্রে এই প্রতিবেদনে আমরা আপনাদেরকে এমন একটি গোপন ক্যামেরার কথা জানাতে চলেছি, যেটা সর্বজনগ্রাহ্য একটি জিনিসের মধ্যে এমনভাবে লুকিয়ে ব্যবহার করা হয় যে কারোর বিন্দুমাত্র সন্দেহ হওয়ার কোনো জো নেই! চলুন তাহলে একটু বিশদেই ব্যাপারটি জেনে নেওয়া যাক।

বর্তমানে এমন কোনো বাড়ির হদিশ পাওয়া যাবে না, যেখানে স্মার্টফোন নেই। তাই স্মার্টফোনের সাথে সম্পর্কিত কোনো অ্যাক্সেসরিজে যদি একটি হিডন ক্যামেরা লাগিয়ে দেওয়া যায়, তাহলে তো খুব স্বাভাবিকভাবেই কারোর নজরে পড়ার বা সন্দেহ হওয়ার কোনো কারণ থাকবেই না। আর ঠিক এইজন্যই মার্কেটে এমনই একটি হিডেন ক্যামেরার আবির্ভাব ঘটেছে, যেটি অ্যামাজন (Amazon)-এ উপলব্ধ। আসলে জনপ্রিয় ই-কমার্স সাইটটিতে দুর্দান্ত থুড়ি মোবাইল চার্জার পাওয়া যাচ্ছে, যাতে স্পাই ক্যামেরা লাগানো রয়েছে। নিঃসন্দেহে বলা যায়, চার্জারের মধ্যে যে ক্যামেরা লুকোনো থাকবে একথা কেউ কোনোদিন স্বপ্নেও ভাবতে পারবে না!

অ্যামাজন থেকে আউশা (AUSHA)-র এই হিডন ক্যামেরাযুক্ত ফোন চার্জারটি কেনা যেতে পারে, যা আপনি চার্জিং সকেটে রেখে স্পাই ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। আর সবচেয়ে বড়ো কথা হল, মাত্র এক থেকে দেড় হাজার টাকা খরচ করলেই ইউজাররা এই ফোন চার্জারটিকে পকেটস্থ করতে পারবেন। আরও ভালোভাবে বললে, হাজার টাকার কাছাকাছি খরচ করলে ফোন চার্জ তো করা যাবেই, আবার সেইসাথে কারোর ওপর নজরও রাখা যাবে বৈকি!

AUSHA-র চার্জার কাম হিডন ক্যামেরার স্পেসিফিকেশন

আউশার স্পাই ক্যামেরা ফোন চার্জারে একটি পোর্টেবল হোম সিকিউরিটি ক্যামেরা রয়েছে, যা নাইট ভিশন এবং মোশন সেন্সর সহ আসে। একইসঙ্গে এই ক্যামেরায় মোশন ডিটেকশন বা লুপ রেকর্ডিং ফিচারও পাওয়া যাবে। প্রোডাক্ট ডেসস্ক্রিপশনে বলা হয়েছে যে, চার্জারটিতে ৩২ জিবি মেমোরি কার্ড লাগিয়ে প্লাগ-ইন করা মাত্রই ক্যামেরাটি তার কাজ শুরু করে দেয়। অর্থাৎ, এর জন্য কোনো অ্যাপ বা রিমোট কনফিগারেশনের প্রয়োজন হবে না। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে যে, এই ডিভাইসের সাহায্যে ১০৮০পি-তে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। এই চার্জারটির সাহায্যে ফোন ছাড়া অন্যান্য ডিভাইসও চার্জ করা যেতে পারে। নিঃসন্দেহে বলা যায় যে, বর্তমান ডিজিটাল যুগে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির কল্যাণে নির্মিত একটি দুর্দান্ত গ্যাজেট হল এই স্পাই ক্যামেরা ফোন চার্জার।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

টেকগাপের মেম্বাররা ও সদ্য যোগ দেওয়া লেখকরা এই প্রোফাইলের মাধ্যমে টেকনোলজির সমস্ত রকম খুঁটিনাটি আপনাদের সামনে আনে।