Aprilia SR 160 স্কুটারের Facelift ভার্সনের ছবি প্রকাশ্যে, লঞ্চ আর কয়েকদিনের মধ্যেই

Aprlia SR 160 Facelift ভার্সনের দু'টি কালার ভ্যারিয়েন্টের ফটো ফেসবুকে পোস্ট করা হয়েছে

ফেস্টিভ সিজনেই Aprilia SR 160 স্কুটারের আপডেটেড ভার্সন নিয়ে আসবো আমরা। গত এপ্রিলে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছিলেন এপ্রিলিয়ার অভিভাবক সংস্থা পিয়াজিও গ্রুপের ভারতীয় শাখার চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর দিয়েগো গ্রাফি (Diego Graffi)। ভারতের সবচেয়ে রোমাঞ্চকর এবং স্পোর্টি স্কুটারের মধ্যে একটি হল Aprilia SR 160। কিন্তু এটি বাজারে পা রাখার পর যেমন কোনও বড় স্টাইলিং আপগ্রেড পায়নি, তেমনই যুগোপযোগী ফিচারের নিরিখেও বেশ পিছিয়ে। আর সে কারণেই সমস্ত খামতি খুঁজে বার করে স্কুটারটি নতুন অবতারে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দিয়েগো গ্রাফি।

এপ্রিল কবেই চলে গিয়েছে। আজ ২ নভেম্বর। দিওয়ালি উপলক্ষ্যে সাজো সাজো রব। লেখেছে কেনাকাটার ধুম৷ নতুন SR 160 বাজারে নিয়ে আসার এর থেকে আর ভাল সময় পাবে না এপ্রিলিয়া। এতএব, অফিসিয়াল লঞ্চ দোরগোড়ায় বলা চলে। আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণার আগেই এখন সামনে চলে এল নতুন Aprlia SR 160 Facelift ভার্সনের ছবি। প্রকাশের কৃতিত্ব এপ্রিলিয়া রাইডার্স ক্লাব বেঙ্গালুরুর।

Aprlia SR 160 Facelift ভার্সনের দু’টি কালার ভ্যারিয়েন্টের ফটো তারা ফেসবুকে পোস্ট করেছে, যা কোনও ওয়ারহাউসে তোলা বলেই মনে হচ্ছে। একনজরে এবার দেখে নেওয়া যাক স্কুটারটির আপডেটেড মডেলে কী কী অদলবদল থাকছে৷

Aprlia SR 160 Facelift স্টাইলিং

এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০ ফেসলিফ্ট-এর বহিরঙ্গে দেওয়া আপডেটগুলি সুক্ষ্ম হলেও তা চোখে পড়তে বাধ্য৷ প্রথমত, স্কুটারে নতুন রিফ্রেশিং বডি গ্রাফিক্স দেওয়া। দ্বিতীয়ত, এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০ ফেসলিফ্ট-এর পিছনের আসনে সিঙ্গেল-পিস পিলিয়ন গ্রাব রেল যুক্ত করা হয়েছে। যেখানে পুরনো মডেলে স্প্লিট গ্রাব রেল দেখা যেত। তৃতীয়ত, নতুন হেডলাইট ডিজাইন।

এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০ ফেসলিফ্ট-এ ইংরেজি ‘ভি’ আকৃতির আপডেটেড সিঙ্গেল-বিম হেডলাইট দেওয়া হয়েছে। পুরনো মডেলের কথা বললে, তাতে হ্যালোজেন ডুয়েল-বিম হেডল্যাম্প ছিল। ফেসলিফ্ট ভার্সনের হেডলাইটে দু’পাশ স্লিক এলইডি ডিআরএল দিয়ে সজ্জিত৷ ফ্রন্ট অ্যাপরনের স্টাইলিংয়েও বদল আনা হয়েছে। এখন সাইড ফেয়ারিংয়ের উপর নতুন ক্রিজ রয়েছে।

Aprlia SR 160 Facelift-এর যে দুই ছবি সামনে এসেছে, তাতে এটি দু’টি রঙে দৃশ্যমান – সাদা ও কালো। প্রথমটিতে ব্ল্যাকড আউট ফেন্ডার, হ্যান্ডেলবার, গ্রাব রেল, অ্যালয় হুউল, এবং ফ্লোরবোর্ড প্যানেল রয়েছে। আবার একটু খুঁটিয়ে পর্যবেক্ষণ করলে সামনের মাডগার্ডে কার্বন ফাইবারের ফিনিশিং চোখে পড়বে। প্রিমিয়াম অ্যাপিল আনার জন্যই এই উদ্যোগ।

এছাড়াও Aprlia SR 160 Facelift-এর আরেকটি লক্ষণীয় বিষয় হল ফ্রন্ট অ্যাপরনে লোগোর নীচে থাকা তেরঙ্গা পতাকার স্টিকার। ভারতের নয়, এপ্রিলিয়ার জন্ম যেহেতু ইতালিতে, সেহেতু সে দেশের ত্রিবর্ণ রঞ্জিত পতাকা (সবুজ, সাদা, ও লাল) ব্যবহার করা হয়েছে সেটিতে।

Aprlia SR 160 Facelift ইঞ্জিন

এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০ ফেসলিফ্ট ভার্সনের অভ্যন্তরে কোনও পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা নেই। আগের মতোই এটি দৌড়বে ১৬০.০৩ সিসি-র সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ফুয়েল ইঞ্জেকটেড ইঞ্জিনে। এর থেকে ৭,৬০০ আরপিএমে ১০.৮ বিএইচপি শক্তি ও ৬,০০০ আরপিএমে ১১.৬ এনএম টর্ক পাওয়া যাবে। ইঞ্জিনের সাথে দেওয়া থাকবে সিভিটি গিয়ারবক্স।

Aprlia SR 160 Facelift হার্ডওয়্যার

এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০ ফেসলিফ্ট হার্ডওয়্যারের দিক থেকেও অপরিবর্তিত থাকবে। সাসপেনশনের জন্য স্কুটারের সামনে ৩০ মিমি টেলিস্কোপিক ফোর্ক এবং পিছনে মনোশক পাওয়া যাবে। সামনের দিকে ২২০ মিমি ডিস্ক ব্রেক এবং পিছনে ১৪০ মিমি ড্রাম ব্রেক দেখা যাবে৷ স্কিডিং এড়াতে সিঙ্গেল চ্যানেল এবিএস থাকবে। স্কুটার চলবে ১৪ ইঞ্চির অ্যালয় হুইলে।

Aprlia SR 160 Facelift ফিচার

উল্লেখযোগ্য ফিচার হিসেবে বর্তমানে এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০-এ রয়েছে সেমি-ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, উইন্ডস্ক্রিন, এবং পেরিমিটার টাইপ-ক্র্যাশ গার্ড। ফেসলিফ্ট ভার্সনে আপডেটেড ফিচারসমূহের তালিকায় ব্লুটুথ কানেক্টিভিটিযুক্ত ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, ইঞ্জিন স্টার্ট-স্টপ সুইচ এবং সাইড স্ট্যান্ড ইঞ্জিন কাট-অফ সুইচ দেখা যেতে পারে।

Aprlia SR 160 Facelift দাম (সম্ভাব্য)

এপ্রিলিয়া এসআর ১৬০-এর এক্স-শোরুম দাম ১ লক্ষ ৯ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ ১৬ হাজার টাকা। আপডেটের কথা বিচার করলে, ফেসলিফ্ট ভার্সনের দাম হাজার চারেক বেশি রাখা হবে বলে ধরে নেওয়া যায়।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন