এই৭ কারণে Android ফোন ছেড়ে আপনার iPhone ব্যবহার করা উচিত, জানাল Apple

ভারতের বাজারে অ্যাপল সম্প্রতি 'হিয়ার ফ্রম দ্য সুইচার্স' প্রচারাভিযানের সূচনা করেছে। এর মধ্যে দিয়ে আমেরিকা-ভিত্তিক সংস্থাটি এমন কিছু কারণ তুলে ধরতে সচেষ্ট, যেগুলি নতুন স্মার্টফোন ক্রেতাদের অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন বেছে নিতে ভরসা জোগাবে

স্মার্টফোনের দুনিয়ায় Android বনাম iPhone বিতর্ক একেবারেই নতুন নয়। এদের মধ্যে কোন ধরনের ডিভাইস অধিকতর ভালো ব্যবহারিক অভিজ্ঞতা প্রদান করে তা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত প্রায় সব মহল। এক্ষেত্রে কম দামে বেশি সুযোগসুবিধার জন্য অনেকেই অ্যান্ড্রয়েড ফোনের পক্ষ বেছে নেবেন। তবে একথাও ঠিক যে অপেক্ষাকৃত উচ্চ বাজারমূল্য সত্ত্বেও আইফোনের বিক্রি দিন দিন বাড়ছে। ফলে আজকের পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে নতুন স্মার্টফোন ক্রেতারা Android বনাম iPhone বিতর্কের নতুন নতুন উত্তর খুঁজছেন।

Android বনাম iPhone: বিতর্কের জবাব পেতে ‘Hear from the Switchers’, বলছে Apple

সাধারণভাবে আগ্রাসী বিপণন নীতির রাস্তায় না হাঁটলেও, ভারতের বাজারে অ্যাপল সম্প্রতি ‘হিয়ার ফ্রম দ্য সুইচার্স’ প্রচারাভিযানের সূচনা করেছে। এর মধ্যে দিয়ে আমেরিকা-ভিত্তিক সংস্থাটি এমন কিছু কারণ তুলে ধরতে সচেষ্ট, যেগুলি নতুন স্মার্টফোন ক্রেতাদের অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন বেছে নিতে ভরসা জোগাবে। নীচে এমনই ৭টি কারণ উল্লেখ করা হলো –

উন্নত প্রাইভেসি (Better Privacy)

অ্যাপলের বক্তব্য, উন্নত প্রাইভেসি বিকল্পের জন্য একজন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন বেছে নিতে পারেন। অ্যান্ড্রয়েডের তুলনায় তারা ইউজারের ডেটা অধিক সুরক্ষিত রাখেন বলে অ্যাপলের দাবী।

লেটেস্ট সফটওয়্যার আপডেট (Latest Software Update)

নিয়মিত সফটওয়্যার আপডেট অ্যাপল প্রোডাক্টের ক্রমবর্ধমান চাহিদার অন্যতম কারণ। এক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড নির্ভর ডিভাইসের তুলনায় আইফোন অনেকটাই এগিয়ে। ঘন ঘন সফটওয়্যার এবং সিকিউরিটি আপডেট রোলআউটের ফলে আইফোনে সর্বদাই নতুন নতুন ফিচারের দেখা মেলে যা তাদের নিয়মিতভাবে আপ-টু-ডেট রাখে।

অধিকতর স্থায়ী মূল্যমান (Longer Value)

অন্যান্য স্মার্টফোনের তুলনায় অ্যাপল আইফোনের মূল্য অনেক বেশি দিন পর্যন্ত বজায় থাকে। এর প্রধান কারণ আইফোনের অপেক্ষাকৃত টেকসই গুণমান। অ্যাপলের দাবী, নতুন আইফোন ডিভাইসগুলি সেরামিক শিল্ড সহ বাজারে এসেছে। এগুলি অন্য যে কোনো স্মার্টফোন গ্লাসের তুলনায় অধিক শক্তসামর্থ্য। এর সাথে নিয়মিত আপডেটের সুবিধা আইফোনের মূল্য দীর্ঘদিন ধরে রাখে।

ব্যবহারিক সহজতা (Easier to use)

অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন বেছে নেওয়ার কারণ হিসেবে অ্যাপল তাদের ডিভাইসের ব্যবহারিক সহজতার দিকটি তুলে ধরেছে। সংস্থার মতে, ক্রেতাদের মসৃণ ব্যবহারিক অভিজ্ঞতা প্রদানের কথা ভেবেই প্রকৌশলীরা আইফোনের সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার ডিজাইন করেন। তাই এদের ব্যবহারের ক্ষেত্রে বিশেষ অসুবিধায় পড়তে হয়না। এই বৈশিষ্ট্য আইফোনকে, অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের তুলনায় এগিয়ে রাখে।

উন্নত ক্যামেরা (Better Cameras)

অ্যাপলের দাবী, উন্নত ফটোগ্রাফিক অভিজ্ঞতার জন্য একজন ক্রেতা অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন ডিভাইস বেছে নিতে পারেন। অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের তুলনায় আইফোনে অনেক উন্নত মানের ক্যামেরা প্রদান করা হয়। সেক্ষেত্রে এতে আলাদা আলাদা মোডে অপেক্ষাকৃত ভালো ফটোগ্রাফির সুযোগ মেলে।

দ্রুত প্রসেসর (Faster Processor)

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের তুলনায় আইফোনে দ্রুততর প্রসেসর ব্যবহার করা হয়, যা অপেক্ষাকৃত ভালো পারফরম্যান্স প্রদানের জন্য পরিচিত। এজন্যেও একজন ক্রেতা অ্যান্ড্রয়েডের বদলে আইফোন বেছে নিতে পারেন বলে অ্যাপলের দাবী।

সহজে পরিবর্তনীয় (Easier to Switch)

বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড ছেড়ে iOS প্ল্যাটফর্মে গমনকে আরো সহজ করতে প্রকাশ্যে হাজির ‘Move to iOS’ অ্যাপ। এর মাধ্যমে একজন অনায়াসে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থেকে আইফোনে প্রয়োজনীয় ডেটা, যেমন কনট্যাক্ট, মেসেজ, ফটো, ভিডিও, ই-মেইল আইডি প্রভৃতি স্থানান্তর করতে পারবেন।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন