এক রিচার্জেই চলবে বাড়ির চারটি ফোন, Airtel-র এই ফ্যামিলি প্যাক আজই রিচার্জ করুন

Airtel -এর এই ফ্যামিলি পোস্টপেইড প্ল্যানের সাথে মিলবে সবচেয়ে বেশি সুযোগ-সুবিধা

পরিবারে ইন্টারনেট পরিষেবা ব্যবহারকারী একাধিক সদস্য থাকলে, গ্রাহকেরা প্রধানত কোনও সাশ্রয়ী ফ্যামিলি পোস্টপেইড প্ল্যান বেছে নেওয়া পছন্দ করেন। আর এধরনের প্ল্যানের বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়ে খুব সঙ্গত কারণেই আমাদের মনে পড়ে ভারতী গ্রুপ চালিত দেশের দ্বিতীয় প্রধান টেলিকম অপারেটর সংস্থা এয়ারটেলের (Bharati Airtel) কথা। কারণ এই মুহূর্তে Airtel -এর ঝুলিতে পোস্টপেইড গ্রাহকদের জন্য একে অপরকে টেক্কা দেওয়ার মতো একাধিক লোভনীয় প্ল্যান রয়েছে। গ্রাহকেরা ন্যূনতম ৯৯৯ টাকা অথবা তার চেয়ে বেশি খরচের পরিবর্তে এই প্ল্যানগুলি বেছে নিতে পারেন। আজ এই প্রতিবেদনে আমরা এয়ারটেলের এমনই একটি ফ্যামিলি পোস্টপেইড প্ল্যান সম্পর্কে আলোচনা করবো যা ইউজারদের সর্বাধিক সুযোগ-সুবিধা প্রদান করবে।

খরচ বেশি হলেও Airtel -এর এই ফ্যামিলি পোস্টপেইড প্ল্যানের সাথে মিলবে সবচেয়ে বেশি সুযোগ-সুবিধা

এক্ষেত্রে আমরা যে এয়ারটেল পোস্টপেইড প্ল্যানের কথা আলোচনা করতে চলেছি তা ১৫৯৯ টাকার বিনিময়ে রিচার্জযোগ্য। উক্ত প্ল্যানের সাথে এয়ারটেল উপভোক্তারা এক নয়, বরং একাধিক আকর্ষণীয় সুবিধা লাভ করবেন। যেমন ডেটা বেনিফিটের প্রসঙ্গেই কথা বলা যাক। ১৫৯৯ টাকার এয়ারটেল পোস্টপেইড প্ল্যানের সাথে গ্রাহকেরা মাসে সর্বমোট ২৫০ জিবি (GB) ইন্টারনেট ডেটা খরচের স্বাধীনতা লাভ করবেন। এর সাথে আলোচ্য প্ল্যান চয়নের বদলে মোট তিনটি অ্যাড-অন কানেকশন পাওয়া সম্ভব, যারা প্রত্যেকে ৩০ জিবি ডেটা বেনিফিটের সাথে উপলব্ধ। এছাড়া এই পোস্টপেইড বিকল্পটি ২০০ জিবি পর্যন্ত রোলওভার ডেটা প্রদান করবে।

ডেটা সুবিধা ছাড়াও এয়ারটেলের আলোচ্য প্ল্যান বেছে নিলে যে কোনও নম্বরে অফুরন্ত বা আনলিমিটেড ভয়েস কল করার সুযোগ মিলবে। সাথে দিন প্রতি ১০০ এসএমএস খরচের ছাড়পত্র পাওয়া যাবে। তাছাড়া এই প্ল্যান একাধিক চিত্তাকর্ষক ওটিটি (OTT) বেনিফিট সহ আগত।

১৫৯৯ টাকার পোস্টপেইড প্ল্যান রিচার্জের ফলে এয়ারটেল গ্রাহকেরা প্রাথমিকভাবে সর্বপ্রকার Airtel Thanks Benefit সম্পূর্ণ ফ্রি’তে লাভ করবেন। এছাড়া এই বিকল্পের সাথে বিনামূল্যে Netflix, Amazon Prime, Disney+ Hotstar সাবস্ক্রিপশন সহ আরো অনেক সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে।

সবার আগে খবর পেতে Google News-এ ফলো করুন