AirCar: রাস্তায় চলবে আবার আকাশেও উড়বে, উড়ন্ত গাড়ি গণ-উৎপাদনের আরও কাছে পৌঁছে গেল

aircar-flying-car-gets-another-step-closer-to-mass-production

সময় যত পেরোচ্ছে প্রযুক্তির প্রতি মানুষের চাহিদাও ততটাই বেড়ে চলেছে। আর মানুষের এই চাহিদাকে পূরণ করতে নাওয়া খাওয়া ভুলে রাতদিন এক করে কাজ করে চলেছেন বিজ্ঞানীরা। একটি গাড়ি রাস্তায় চলার পাশাপাশি আকাশে ডানা মেলে উড়তে পারে, কয়েক বছর আগেও এ শুধু চলচ্চিত্রের পর্দাতেই মানানসই ছিল। কিন্তু প্রযুক্তির কল্যাণে সম্প্রতি তা বাস্তবায়িত করে দেখিয়েছে ইউরোপ মহাদেশের স্লোভাকিয়া’র কোম্পানি Klein Vision। AirCar নামক উড়ন্ত গাড়িটি রাস্তায় চলার সাথে আকাশেও উড়তে সক্ষম। এতে ব্যবহার করা হয়েছে BMW-র ইঞ্জিন। জানা গেছে খুব শীঘ্রই Klein Vision AirCar-এর গণ উৎপাদন শুরু হতে চলেছে।

২০২০ সালে এয়ারকার (AirCar)-এর প্রথম প্রোটোটাইপ মডেল তৈরি করেছিল ক্লেইন ভিশন, যা গত বছর জুন মাসে দেশের শহরাঞ্চলগুলিতে কয়েক চক্কর লাগিয়েছিল। কিন্তু এবার ক্লেইন ভিশন এয়ারকার (Klein Vision AirCar) আকাশে যাত্রী সহ ওড়ার যোগ্যতার শংসাপত্র পেল স্লোভাকিয়ার পরিবহণ কর্তৃপক্ষের তরফে৷ খবরটি প্রকাশ করেছে কারস্কুপ্স পোর্টাল৷ আর তাই বাজারের নিয়ে আসতে এর গণ উৎপাদন শুরু করার কথা ভাবছে সংস্থাটি।

ফ্লাইং কারটির আকাশে ওড়ার এই সাফল্য অর্জন করতে ৭০ ঘন্টার অধিক টেস্টিং চালিয়েছে ক্লেইন ভিশন। এই প্রসঙ্গে সংস্থার ডেভলপমেন্ট টিম এবং টেস্ট পাইলট প্রধান স্টিফান ক্লেইন (Stefan Klein) বলেছেন, “শংসাপত্রটি AirCar এর মতো কার্যকর উড়ন্ত গাড়ির গণ উৎপাদনের পথ খুলে দিয়েছে। এটি অফিশিয়াল এবং আমাদের মধ্য-দূরত্ব ভ্রমণের অভিজ্ঞতা চিরতরে পরিবর্তন করার চূড়ান্ত নিশ্চিতকরণ।”

উড়ন্ত যানটিতে রয়েছে একটি ১৪০ এইচপি শক্তি উৎপাদনকারী ১.৬ লিটার ফোর সিলিন্ডার বিএমডব্লিউ (BMW) ইঞ্জিন, একটি ফিক্সড প্রোপেলার এবং একটি ব্যালিস্টিক প্যারাসুট। এই ফ্লাইং গাড়িটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ১৭০ কিমি। এছাড়াও এটি ৮,২০০ ফুট উচ্চতা দিয়ে একটানা ১,০০০ কিমি পথ অতিক্রম করতে পারে। আবার এটি শূন্যে নানাবিধ ক্রিয়া কৌশল দেখাতে সক্ষম।

গেম খেলতে এখানে ক্লিক করুন

শুভদীপ টেকগাপে অটোকার বিষয়ক লেখালিখি করে। এর আগে বিভিন্ন পোর্টালের সাথে যুক্ত থাকলেও, অটোকার নিয়ে টেকগাপে তার হাতেখড়ি। দিনকে দিন সে টেকগাপের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেছে।