Air India Data Leak: ৪৫ লক্ষ যাত্রীর ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড সহ ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস, সুরক্ষিত থাকতে কী করবেন জেনে নিন

সাইবার জালিয়াতির ফলে ডেটা বেহাতের ঘটনা সাম্প্রতিক কালে আকছার শোনাই যায়। প্রায়ই খবরের শিরোনামে কোনো বড়ো সংস্থার, নামীদামী ব্যক্তিত্বের, বা এমনকি নিতান্তই সাধারণ মানুষের হ্যাকিংয়ের শিকার হওয়ার খবর আমরা পেয়ে থাকি। সেক্ষেত্রে এবার ডেটা হ্যাকিংয়ের ঘটনায় নাম জড়ালো Air India-র। রিপোর্ট অনুযায়ী, রাষ্ট্রায়ত্ত এই বিমান সংস্থার ৪৫ লক্ষ যাত্রীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হয়েছে। ২০১১ সালের ২৬ অাগস্ট থেকে শুরু করে চলতি বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রায় ১০ বছরের তথ্য হ্যাক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এই তথ্যগুলির মধ্যে রয়েছে যাত্রীদের নাম, জন্ম তারিখ, টিকিটের তথ্য, পাসপোর্টের তথ্য, ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, স্টার অ্যালায়েন্স ও এয়ার ইন্ডিয়ার ঘন ঘন উড়ানের তথ্য-‌সহ বিশদ বিবরণ। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় বিশ্বব্যাপী লক্ষ লক্ষ বিমান যাত্রীদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। আসুন এই ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

কী জানিয়েছে Air India

Air India গণমাধ্যমকে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, যাত্রীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াকরণের জন্য দায়ী প্যাসেঞ্জার সার্ভিস সিস্টেমের SITA PSS ডেটা প্রসেসর সাইবার হামলার শিকার হয়েছে।

কী কী তথ্য ফাঁস হয়েছে

এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইয়ারদের নাম, জন্ম তারিখ, কন্ট্যাক্ট ডিটেলস, পাসপোর্টের তথ্য, টিকিটের তথ্য, ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ডের ডিটেলস, স্টার অ্যালায়েন্স এর মত ডেটা ফাঁস হয়েছে বলে জানা গেছে।

কোন কোন তথ্য ফাঁস হয়নি

এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, সৌভাগ্যক্রমে CVV/CVC ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ডের নম্বরগুলি ফাঁস হয়নি, কারণ এগুলি SITA PSS ডেটা প্রসেসরে রাখা হয় না।। এছাড়া, কোনও পাসওয়ার্ডের ডেটা হ্যাক হয়নি বলে জানা গিয়েছে।

নিরাপদ থাকার জন্য যাত্রীদের অবিলম্বে কী করতে হবে

আপনি যদি কখনও এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট বুক করে থাকেন, তবে অবিলম্বে সমস্ত অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। এর মধ্যে রয়েছে ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং এবং ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড পিনের (PINs) পাসওয়ার্ড। সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে আপনি আপনার পুরোনো ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডটি বদলে ব্যাংক থেকে একটি নতুন কার্ড নিয়ে নিতে পারেন। যদি তা সম্ভব না হয় তবে আগামী দিনে সংশ্লিষ্ট অ্যাকাউন্টগুলির লেনদেনের উপর নজর রাখুন এবং এই মুহূর্তে সেগুলিতে যতটা সম্ভব কম টাকা মজুত রাখুন।

যে সকল যাত্রীদের ডেটা ফাঁস হয়েছে তারা কীভাবে হ্যাকার এবং সাইবার অপরাধীদের টার্গেট হতে পারে, এবং তা থেকে সুরক্ষিত থাকতে যাত্রীদের কী কী করতে হবে

সাধারণত যে কোনও ডেটাবেস ব্রিচিংয়ের পরে হ্যাকাররা ফিশিং অ্যাটেম্পট নেওয়ার চেষ্টা করে। অনুগ্রহ করে আপনারা SMS বা ইমেলের মাধ্যমে পাওয়া কোনোও অজানা ওয়েব লিংকে ক্লিক করবেন না। এই ফাঁস হওয়া ডেটার মাধ্যমে, আপনি ফিশিং অ্যাটাক বা এর সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য স্ক্যামের শিকার হতে পারেন। এছাড়াও মনে রাখবেন যে, স্ক্যামাররা আপনাকে টার্গেট করার জন্য এই হ্যাক হওয়া ডেটা অন্যভাবেও ব্যবহার করতে পারে। তাই সতর্ক থাকুন এবং কোনোও অজানা কল, SMS, WhatsApp মেসেজ বা ইমেল-এর রিপ্লাই করবেন না।

এছাড়া আপনি যদি এয়ার ইন্ডিয়া, আপনার ব্যাঙ্ক বা অন্য কোনও সংস্থার তথাকথিত কাস্টমার কেয়ার এক্সিকিউটিভের কাছ থেকে কল পান যা আপনার অ্যাকাউন্টের সাথে সম্পর্কিত কোনও সমস্যা সমাধান করার দাবি করে বা কিছু ক্রেডিট কার্ড অফার বা প্রোটেকশন প্ল্যান সম্পর্কে কথা বলে, তাহলে এই ধরনের কলের কোনো হ্যাঁবাচক প্রত্যুত্তর দেবেন না। কারণ এই জাতীয় কল আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসের পাশাপাশি স্ক্যামারদের আপনাকে আরও বড়োসড়ো কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ফেলতে সাহায্য করে।

এই বিষয়ে Air India এখনও পর্যন্ত কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে

এয়ার ইন্ডিয়া দাবি করেছে যে, তারা পাসওয়ার্ড বদলে ফেলে অ্যাফেক্টেড সার্ভারগুলিকে সুরক্ষিত করেছে। সার্ভারগুলি সুরক্ষিত করার পর আর কোনও অস্বাভাবিকত্ব লক্ষ্য করা যায়নি, ফলে নতুন ইউজাররা সম্পূর্ণভাবে সুরক্ষিত আছেন। তারা Air India FFP প্রোগ্রামের পাসওয়ার্ডগুলি পুনরায় সেট করছে, এবং ক্রেডিট কার্ড ইস্যুয়ারদের সাথে যোগাযোগ করে তাদের এই ব্যাপারে অবহিত করছে। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে এবং তথ্য সুরক্ষার ব্যাপারে বিশেষজ্ঞদের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে বলেও এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

স্মার্টফোন, গাড়ি-বাইক সহ প্রযুক্তি দুনিয়ার সব গুরুত্বপূর্ণ খবর সবার আগে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News ও Twitter পেজ, সঙ্গে অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।